bangla news

খাগড়াছড়িতে ৩ জেএমবি সদস্যের ১০ বছর করে কারাদণ্ড

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-১০-১৭ ৩:২১:২৪ এএম

বিস্ফোরক মামলায় নিষিদ্ধ সংগঠন জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) ৩ সদস্যকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড ও দুই হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন খাগড়াছড়ির বিশেষ ট্রাইব্যুনাল।

খাগড়াছড়ি: বিস্ফোরক মামলায় নিষিদ্ধ সংগঠন জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) ৩ সদস্যকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড ও দুই হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন খাগড়াছড়ির বিশেষ ট্রাইব্যুনাল।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) বেলা ১১টায় খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ মো. ইনামুল হক ভূঁইয়ার বিশেষ ট্রাইবুন্যাল এ রায় ঘোষণা করেন। এসময় আদালতে ৩ আসামিই উপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার উপজেলার ছুটনা গ্রামের বাসিন্দা জেএমবির চট্টগ্রাম অঞ্চলের দ্বিতীয় শীর্ষ নেতা আব্দুর রহিম ওরফে জাহিদ হোসেন, খাগড়াছড়ি মাটিরাঙ্গা উপজেলার শান্তিপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন ও মাটিরাঙ্গার শান্তিপুর এলাকার মো. ইউনুছ।

খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলি অ্যাডভোকেট বিধান কানুনগো জানান, জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার দুর্গম শান্তিপুর এলাকায় ২০০৯ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে নিষিদ্ধ সংগঠন জেএমবির প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের সন্ধান পায় নিরাপত্তা বাহিনী। পরে সেখানে অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে আটক করা হয়। এসময় একজন পালিয়ে যায়।

পরদিন ওই পাঁচজনকে আসামি করে ১৯০৮ সালের অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনের ৪ ধারা তৎসহ ২০০৮ সালের সন্ত্রাসবিরোধী আইনের ৬(১)(খ) ধারায় মাটিরাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০০৯ সালের ১১ ডিসেম্বর চার্জশিট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মাটিরাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মো. মিজানুর রহমান।

রাষ্ট্রপক্ষের নয়জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে দীর্ঘ সাত বছর পর এ রায় ঘোষণা করা হয়।

এর আগে ২৪ সেপ্টেম্বর একই মামলায় ওই তিন আসামিসহ মোট ৫জনকে অস্ত্র আইনে সাত বছর করে কারাদণ্ড দেন জেলা ও দায়রা জজ মো. ইনামুল হকের বিশেষ ট্রাইব্যুনাল।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২১ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০১৬
আরএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইন ও আদালত বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2016-10-17 03:21:24