ঢাকা, শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

আইন ও আদালত

হাইকোর্ট থেকে মামলা স্থানান্তরে নিষেধাজ্ঞা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৯ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০১৬
হাইকোর্ট থেকে মামলা স্থানান্তরে নিষেধাজ্ঞা

ঢাকা: সিভিল কোর্টস অ্যাক্ট সংশোধন করে দেওয়ানি আদালতের বিচারকদের আর্থিক এখতিয়ার বৃদ্ধির ফলে হাইকোর্টের বিচারাধীন আপিল সমূহ ফেরত যাওয়ার বিধান কেন বেআইনি ও অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।
 
একই সঙ্গে এ সংশোধনীর ফলে হাইকোর্টের বিচারাধীন দেওয়ানি আপিল মামলাগুলো বিচারিক আদালতে ফেরত পাঠানোর ওপর তিনমাসের নিষেধাজ্ঞা নির্দেশ দিয়েছেন।


 
এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে সোমবার (৩০ মে) বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের  হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
 
চার সপ্তাহের মধ্যে আইন সচিব, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ও হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
 
সিভিল কোর্টস অ্যাক্ট-১৮৮৭ সংশোধন করে গত ১২ মে গেজেট জারি করে সরকার। সংশোধিত আইন অনুসারে এখন একজন সহকারী জজ ২ লাখ টাকার পরিবর্তে ১৫ লাখ টাকা, সিনিয়র সহকারী জজ ৪ লাখ টাকার পরিবর্তে ২৫ লাখ টাকা এবং জেলা জজ ৫ লাখ টাকার পরিবর্তে ৫ কোটি টাকা মূল্যমানের মামলার নিষ্পত্তি করতে পারবেন। সংশোধিত এই আইনের ৪ (৩) ধারায় বলা হয়েছে, ‘সংশোধিত আইনের ফলে উপরোক্ত মূল্যমানের হাইকোর্টে বিচারাধীন আপিলগুলো শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য জেলা জজ আদালতে ফেরত যাবে’।
 
এ ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন ব্যারিস্টার সাইদুল আলম খান, ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল সাঈদ ও ব্যারিস্টার শুভ্রদেব রাতুল।
 
আবেদনে বলা হয়, সংশোধিত এ আইনের ফলে বিচারপ্রার্থী জনগণ আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। হাইকোর্টের বিচারাধীন আপিলগুলো শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য নিম্ন  আদালতে ফেরত গেলে সেখানে বিচারের একটি ধাপ বাড়বে। কারণ নিম্ন আদালতে মামলা নিষ্পত্তির পর সংক্ষুব্ধ পক্ষ পুনরায় হাইকোর্টে আপিল করবেন। ফলে বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তির কারণ হবে, বাড়বে মামলাজট।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৫ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০১৬
ইএস/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa