ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

স্ত্রী হত্যায় গাজীপুরের আয়নালের ফাঁসির দণ্ড বহাল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৬ ঘণ্টা, মে ১৫, ২০২৪
স্ত্রী হত্যায় গাজীপুরের আয়নালের ফাঁসির দণ্ড বহাল

ঢাকা: গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাইমাইল এলাকায় স্ত্রী আনোয়ারা বেগমকে হত্যার দায়ে স্বামী আয়নাল হককে বিচারিক আদালতের দেওয়া মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট।

বিচারিক আদালতের রায়ে বুধবার অনুমোদন দেন বিচারপতি মো.হাবিবুল গনি ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

একইসঙ্গে মৃত্যুদণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে আয়নালের আপিল ও জেল আপিল খারিজ করা হয়।

আদালতে আয়নালের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এম এ মুন্তাকিম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো.আসাদুজ্জামান মনির।

দণ্ডপ্রাপ্ত আয়নাল হক গাজীপুর নগরীর বাইমাইল পশ্চিমপাড়ার আব্দুল মান্নানের ছেলে।

২০১৫ সালের ১০ জানুয়ারি রাতে বাইমাইলের বাড়ি থেকে আয়নালের স্ত্রী আনোয়ারা বেগমের দগ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত আনোয়ারা বেগমের স্বামী আয়নাল হক ও ভাই আমজাদ হোসেন আঞ্জুকে আটক করা হয়। পরে কথাবার্তায় সন্দেহ হলে কোনাবাড়ি পুলিশ ক্যাম্পের তৎকালীন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রফিকুল ইসলাম আটক দু’জনকে আসামি করে জয়দেবপুর থানায় মামলা করেন।

পরে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে আয়নাল হক তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগমকে শ্বাসরোধে হত্যা এবং ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে মরদেহের গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন দেওয়ার দায় স্বীকার করেন।

জয়দেবপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ মো. আজহারুল ইসলাম মামলাটির তদন্ত শুরু করেন। এরপর সিআইডি’র হাত ঘুরে অধিকতর তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনে (পিআইবি) পাঠানো হয়।  

পিআইবি’র পরিদর্শক মো. ওবায়দুর রহমান খান তদন্ত শেষে নিহত আনোয়ারা বেগমের ভাই আমজাদ হোসেন আঞ্জুকে অব্যাহতি দিয়ে স্বামী আয়নাল হকের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এ মামলায় ৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। বিচার শেষে ২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর রায় দেন গাজীপুর জেলা ও দায়রা জজ এ কে এম এনামুল হক।

এরপর মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য নথি (ডেথ রেফারেন্স) হাইকোর্টে পাঠানো হয়। পাশাপাশি আয়নাল আপিল ও জেল আপিল করেন।

আরও পড়ুন : গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৬ ঘণ্টা, মে ১৫, ২০২৪
ইএস/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।