ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৩ মে ২০২৪, ১৪ জিলকদ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

যশোরে অস্ত্র ও মাদক মামলায় দুইজনের কারাদণ্ড

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২৪
যশোরে অস্ত্র ও মাদক মামলায় দুইজনের কারাদণ্ড

যশোর: যশোরে একটি অস্ত্র মামলায় দুটি ধারায় এক ব্যক্তির ১৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও মাদক মামলায় আরেক ব্যক্তিকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শিমুল কুমার বিশ্বাস পৃথক এ রায় ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন আদালতে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) শ্যামল কুমার মজুমদার।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, অস্ত্র মামলায় সাজাপ্রাপ্ত শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম ও মাদক মামলায় শার্শা উপজেলার সোনাদিয়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে ইমাদুল ইসলাম।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর রাত ৪টায় কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোয়েব উদ্দিন শহরের প্রাণকেন্দ্র দড়াটানা থেকে জাহাঙ্গীর আলমকে আটক করেন। এ সময় আরেকজন পালিয়ে যায়। পুলিশ জাহাঙ্গীরের কাছ থেকে একটি বিদেশি রিভলবার ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এসআই সোয়েব আটক জাহাঙ্গীর ও ঘোপ বাবলাতলা এলাকার নবাব আলীর ছেলে সোহাগ ওরফে জেলে সোহাগকে পলাতক আসামি করে দুইজনের নামে মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করে এসআই কবির হোসেন দু’জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন।

বৃহস্পতিবার এ মামলার রায় ঘোষণার দিনে বিচারক জাহাঙ্গীরকে পৃথক দুটি ধারায় একটি ১০ বছর ও অপরটিতে আরও সাত বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন। একইসঙ্গে এ মামলায় সোহাগের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে খালাস দেন।

এছাড়া ২০১৭ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি শার্শার গোড়পাড়া ক্যাম্প এলাকা থেকে শার্শা থানা পুলিশের হাতে আটক হয় ইমাদুল ইসলাম। এসময় তার কাছ থেকে ১শ পিস ইয়াবার বড়ি উদ্ধার হয়। এ ঘটনায় এসআই বাবুল আক্তার বাদী হয়ে মামলা করেন। বৃহস্পতিবার এ মামলার রায় ঘোষণার দিনে বিচারক ইমাদুলকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন। বিচারক দুই আসামির উপস্থিতিতে এ সাজা দিয়ে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২৪
ইউজি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।