ঢাকা, শনিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০২ মার্চ ২০২৪, ২০ শাবান ১৪৪৫

আইন ও আদালত

অবৈধ সম্পদ: মির্জা আব্বাসের মামলার রায় পিছিয়ে ১২ ডিসেম্বর 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২৩
অবৈধ সম্পদ: মির্জা আব্বাসের মামলার রায় পিছিয়ে ১২ ডিসেম্বর  মির্জা আব্বাস

ঢাকা: সম্পদের তথ্য গোপন ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নামে দুদকের দায়ের করা মামলার রায় ঘোষণার তারিখ পিছিয়ে আগামী ১২ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ এর বিচারক মঞ্জুরুল ইমামের আদালতে এ মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল।

তবে রায় প্রস্তুত না হওয়ায় তা পিছিয়ে আগামী ১২ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেন আদালত।

এর আগে গত ২২ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য ৩০ নভেম্বর দিন ধার্য করেন।  

এর আগে গত ১৫ নভেম্বর এ মামলায় মির্জা আব্বাসসহ পাঁচজনের সাফাই সাক্ষ্য শেষ হয়। এরপর যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ২২ নভেম্বর দিন ধার্য করেন আদালত।  

গত ৩১ অক্টোবর সময় আবেদন নামঞ্জুর করে তার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন একই আদালত। একইসঙ্গে ২ নভেম্বর মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন ধার্য করেন। সেদিন মির্জা আব্বাসের গ্রেপ্তারের বিষয়ে পুলিশ প্রতিবেদন দিলে আদালত তাকে ৫ নভেম্বর হাজির করতে পরোয়ানা (পিডব্লিউ) ইস্যুর আদেশ দেন। এরপর ৫ নভেম্বর মির্জা আব্বাসকে আদালতে হাজির করা হলে এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে সাফাই সাক্ষ্যের জন্য দিন রাখা হয়।  

রাজধানীর রমনা থানায় ২০০৭ সালের ১৬ আগস্ট মামলাটি করেছিলেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. শফিউল আলম। এতে অবৈধভাবে ৭ কোটি ৫৪ লাখ ৩২ হাজার ২৯০ টাকার সম্পদ অর্জন ও ৫৭ লাখ ২৬ হাজার ৫৭১ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়।

তদন্ত শেষে ২০০৮ সালের ২৪ মে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক মো. খায়রুল হুদা আদালতে অভিযোগপত্র দেন। ২০০৮ সালের ১৬ জুন বিচার শুরু হয়। বিচারে ২৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২৩
কেআই/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।