bangla news

করোনায় রথযাত্রা স্থগিত করলেন ভারতের শীর্ষ আদালত

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-১৯ ৩:২৭:২০ পিএম
.

.

কলকাতা: করোনা ভাইরাসের কারণে ভারতে এবার রথযাত্রা স্থগিত করলেন দেশটির শীর্ষ আদালত। পৃথিবীর প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রার আঁতুড় ঘর ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যের পুরী জেলা। এখানেই ভগবান নারায়ণের অন্যতম অবতার ভগবান জগন্নাথ, তার দাদা বলরাম ও বোন শুভ্রদার পূজা করেন ওই অঞ্চলের বাসিন্দারা। পরে উড়িষ্যাকে অনুসরণ করে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে রথযাত্রা।

সব দিক থেকে উড়িষ্যার প্রধান উৎসব রথযাত্রা। এদিনটিকে কেন্দ্র করে লাখ লাখ মানুষের সমাগম হয়। এবার উড়িষ্যার সেই প্রধান উৎসবকে স্থগিত করলেন ভারতের শীর্ষ আদালত। 

মঙ্গলবার (২৩ জুন) গোটা বিশ্বে কয়েকটি সম্প্রদায়ের এ রথযাত্রায় সামিল হওয়ার কথা। তার আগেই বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) পুরীর রথযাত্রার বিষয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে বলেন, ‘দেশের বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে যদি রথাযাত্রার অনুমোদন দেই তাহলে প্রভু জগন্নাথও আমাদের ক্ষমা করবেন না।’

সম্প্রতি সব বাধা কাটিয়ে অবশেষে রথযাত্রার আয়োজন শুরু হয়েছিল পুরীতে। কিন্তু দেশটির সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘করোনায় শুধু রথযাত্রাই নয়, কোনো ধর্মীয় বা ধর্মনিরপেক্ষ অনুষ্ঠানও করা যাবে না।

প্রসঙ্গত, প্রধান একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান মানে শুধু সামাজিক অনুষ্ঠান নয়। আর্থিকভাবেও স্বচ্ছলতা আনে অঞ্চলটিকে। সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ও আম্পানে বিধ্বস্ত উড়িষ্যা বহু বাধা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে। তবে সমগ্র ভারতের সঙ্গে উড়িষ্যায় যে হারে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে তাতে এবছর রথযাত্রা বন্ধ রাখা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না সুপ্রিম কোর্টের কাছে।

তবে বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘ওড়িশা বিকাশ পরিষদ’। সংগঠনের তরফ থেকে মুকুল রোহতগি বাংলানিউজকে বলেন, ‘পুরীর রথযাত্রা অত্যন্ত প্রসিদ্ধ উৎসব। গত বছরও প্রায় ১০ লাখের বেশি মানুষের জমায়েত হয়েছিল। করোনা পরিস্থিতিতে রথযাত্রা শুরু হলে উড়িষ্যা মহামারি রূপ নেবে। তাই পুরীর রথযাত্রা স্থগিতদেশকে স্বেচ্ছায় মেনে নিলাম।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৭ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০২০
ভিএস/আরআইএস/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

কলকাতা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2020-06-19 15:27:20