bangla news

কলকাতায় সেনাবাহিনী উদযাপন করলো বিজয় দিবস

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-১৬ ৩:৩৭:১০ পিএম
৪৮তম বিজয় দিবস স্মরণ করলো ভারতীয় সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় শাখা। ছবি: বাংলানিউজ

৪৮তম বিজয় দিবস স্মরণ করলো ভারতীয় সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় শাখা। ছবি: বাংলানিউজ

কলকাতা: বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগিতায় মিত্রশক্তি হিসেবে এগিয়ে এসেছিল ভারত। ভারতীয় সেনারাও অংশ নিয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধে। নয় মাসের মুক্তিযুদ্ধে জয়লাভের পর গঠিত হয় স্বাধীন বাংলাদেশ। বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ পরিচিতি পায় স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে।

তাই বাংলাদেশের সঙ্গে দিনটিকে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্মরণ করে ভারতীয় সেনাবাহিনীও। প্রতি বছরের মতো ভারতের অন্য রাজ্যের সঙ্গে ৪৮তম বিজয় দিবস স্মরণ করলো ভারতীয় সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় শাখা অর্থাৎ কলকাতা ফোর্ট উইলিয়াম।

ফোর্ট উইলিয়ামের ‘বিজয় সামারোখ’ শহীদ বেদীতে পুষ্প অর্পণ করেন ভারতীয় সেনাবাহিনী তিনবিভাগ ও মুক্তিযোদ্ধা এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিনিধিরা।

মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের নেতৃত্বে কলকাতায় ১৪ ডিসেম্বর থেকে এসেছেন ৩০ জন সস্ত্রীক মুক্তিযোদ্ধা, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ছয় কর্মকর্তা এবং তাদের স্ত্রীরা। সব মিলিয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অভ্যর্থনায় ৭২ জন বাংলাদেশি কলকাতায় এসেছেন। এই দল ১৪ ডিসেম্বর পালন হওয়া বিজয় উৎসবে ছিলেন।

সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) বিজয় দিবসে সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান শহীদ বেদীতে পুষ্পার্পনের পর বলেন, মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় সেনাবাহিনী ও ভারতীয় নাগরিকদের অবদান ভোলার নয়। ভারতে এক কোটি শরণার্থী রাখার পাশাপাশি নয় মাসের যুদ্ধে সেনাবাহিনীর অবদান আমরা মনে রেখেছি। ভারত আমাদের সবসময়ের জন্য মিত্ররাষ্ট্র।

সব শেষে শহীদ বেদীতে মালা দেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় শাখার লেফটেন্যান্ট জেনারেল অনিল চৌহান। তিনি বলেন, একাত্তরের এই দিনে বিজয় অর্জন করে বাংলাদেশ তৈরি হয়। ভারতীয় সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় মুক্তিযুদ্ধের এই দিনে পাকিস্তান সেনাবাহিনী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আত্মসমর্পণ করেন।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর আয়োজনে ১৪ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া বিজয় উৎসব সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) শেষ হয় বিজয় দিবস উদযাপনের মধ্য দিয়ে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯
ভিএস/এইচএডি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   কলকাতা ভারত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-16 15:37:10