bangla news

সৌরভ কি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন? 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২৬ ৬:১৯:৫৪ এএম
সৌরভ গাঙ্গুলি। ফাইল ফটো

সৌরভ গাঙ্গুলি। ফাইল ফটো

কলকাতা: অমিত শাহের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠকের পর ‘বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া’র (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট হয়েছেন ক্রিকেটের মহারাজা সৌরভ গাঙ্গুলি। এরপর থেকেই পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে গুঞ্জন ছড়িয়েছে, দাদা বিজেপিতে যোগ দিতে যাচ্ছেন! 

এরই মাঝে সেই গুঞ্জনের আগুনে ঘি ঢেলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

বোর্ড সভাপতি হওয়ার আগে অমিত শাহের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক হয় সৌরভের। এরপরই গুঞ্জন তৈরি হয় বিজেপির সঙ্গে সৌরভের কোনো সমীকরণ তৈরি হচ্ছে কি? তাহলে কি স্বচ্ছ ভাবমূর্তির মহারাজা রাজনীতিতে নেমে পড়লেন? 

বৈঠকের পর এই প্রশ্নে গোটা ভারত যখন তোলপাড় ঠিক তখনই সেই জল্পনাকে আরও ঘণীভূত করেছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

যদিও সৌরভ নিজেই জানিয়েছিলেন, ‘রাজনীতি তার খেলার মাঠ নয়।’ 

তবে এই জল্পনা ঘণীভূত হওয়ার কারণ স্বয়ং অমিত শাহ। তিনি ওইদিন বৈঠকের পর জানিয়েছিলেন, ‘বিজেপিতে যোগ দিতে চাইলে মহারাজাকে স্বাগত।’ 

এই ক্রিকেট বোর্ডে সচিব পদে আছেন অমিত শাহের ছেলে জয় শাহ।

বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্টে পদে আনুষ্ঠানিকভাবে সৌরভ বসার পরই এই গুঞ্জন নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে এএফপি। বেশ বড় ওই প্রতিবেদনে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বারবারই এসেছে সৌরভের রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার নানা ইঙ্গিত। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে বসে আসলে সৌরভ গাঙ্গুলি ভারতের জাতীয় রাজনীতির দিকে আরও একধাপ এগিয়ে গেলেন।

তবে প্রতিবেদনে একথা বলার কারণ কী? তারও ব্যাখ্যা দিয়েছে বিশ্বের প্রাচীনতম সংবাদমাধ্যমটি। বলা হয়েছে, সৌরভ গাঙ্গুলির সবচেয়ে বড় ইউএসপি হল তার আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা এবং স্বচ্ছ ইমেজ। তা যেকোনো রাজনৈতিক দলই ব্যবহার করতে নানা শর্তে রাজি হবে। 

বিশেষ করে সৌরভের রাজ্যে ২০২১ সালে বিধানসভা ভোট। তাকে কেন্দ্র করেই পশ্চিমবঙ্গে রাজনীতি আবর্তিত হয় কি না, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

এছাড়া সম্প্রতি এনডিটিভি -তে এক প্রশ্নে কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় ঝা বলেছেন, বর্তমানে বিসিসিআই’য়ের সঙ্গে যারাই যুক্ত আছেন তারা প্রত্যেকেই কোনো না কোনোভাবে বিজেপির সঙ্গে যুক্ত। আর তাতে প্রধান হিসেবে সৌরভ গাঙ্গুলী যুক্ত হয়েছেন। এ বিষয়টা বিজেপিতে যোগের জল্পনাই উসকে দিচ্ছে!

যদিও সৌরভ নিজে তা মানতে একদমই নারাজ। প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে অমিত শাহের সঙ্গে যে বৈঠক হয়েছিল তাতে তার সঙ্গে কোনো রাজনীতির আলাপ হয়নি বলে টুইটও করেছিলেন তিনি। 

কিন্তু বদ্ধঘরে, আলাপে তাদের মধ্যে ঠিক কী আলোচনা হয়েছে, তা এখনও সবার অজানা। ফলে জল্পনার জল ঘোলা হচ্ছে!

তবে প্রতিবেদনটি লেখায় সময় এএফপি উদ্ধৃতি করেছে ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রথমসারির পত্রিকা দ্য হিন্দু’র। তাতে দ্য হিন্দুর রাজনীতি বিষয়ক সম্পাদক নিস্তুলা হেব্বারের মতে, ‘সৌরভ বিজেপিতে যোগ দিলে, পশ্চিমবাংলায় বিধানসভা ভোটে তিনিই বিজেপির সেরা বাজি হতে চলেছেন। সৌরভ গাঙ্গুলি পশ্চিমবাংলায় সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তি। সৌরভকে এতদিন রাজনীতির ঊর্ধ্বে দেখতেই অভ্যস্ত ছিল বাঙালি। কিন্তু অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে রাজনীতির আসরে দাদার অন্তর্ভুক্তির প্রাথমিক ধাপ?’

তবে এই প্রশ্ন সবচেয়ে বেশি জল ঘোলা করছে সৌরভের রাজ্যেই। বিশেষ করে সৌরভের বোর্ড সভাপতি হওয়ার পর পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর থেকেও রাজ্য বিজেপি নেতারা যেভাবে উচ্ছ্বসিত প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন, তা এই জল্পনাকেই আরও জোরালো করেছে!

বাংলাদেশ সময়: ০৬১৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০১৯
ভিএস/এমএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-26 06:19:54