ঢাকা, শুক্রবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

একটি সাজানো বাগান নষ্ট করার জন্য একটি উল্লুকই যথেষ্ট...

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-০৮ ১:৪১:৩৬ পিএম
অনুরাগ কাশ্যপ, অপর্ণা সেন ও স্বরা ভাস্কর

অনুরাগ কাশ্যপ, অপর্ণা সেন ও স্বরা ভাস্কর

কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন বিজেপির সরকারের সময়ে সাম্প্রদায়িক ও বর্ণবাদী কর্মকাণ্ডে অন্য বিশিষ্টজনদের মতো তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন বরেণ্য অভিনেত্রী অপর্ণা সেনও। কাশ্মীর নিয়ে বিজেপি সরকারের পদক্ষেপকে ‘অগণতান্ত্রিক’ উল্লেখ করে আবারও কেন্দ্রকে তীব্র কটাক্ষ করেছেন তিনি। একই সুরে নরেন্দ্র মোদীর সরকারকে ভর্ৎসনা করেছেন চলচ্চিত্র পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপও।

সম্প্রতি কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদায় সংবিধানে রাখা ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে দেয় বিজেপি সরকার। এই ঘটনার আগে অঞ্চলটিজুড়ে সামরিক ও আধা সামরিক বাহিনীর প্রচুর সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়। বন্দি করা হয় সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি, ওমর আব্দুল্লাহসহ মূলধারা রাজনৈতিক দলগুলোর অনেক নেতাকে। ইন্টারনেট, ক্যাবল নেটওয়ার্কসহ যাবতীয় সব যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছে সেখানে। কারফিউ জারি করে রাস্তায় রাস্তায় সাঁজোয়া যান নিয়ে টহল দিচ্ছে সশস্ত্র বাহিনী।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (৭ আগস্ট) নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এক বার্তায় বাঙালি অভিনেত্রী ও নির্মাতা অপর্ণা লেখেন, ‘কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ওপর ১৯৮৯-৯০ সালে অনেক অত্যাচার হয়েছে। তারা যে বাড়ি ফিরতে পারছেন, সেটা ভেবে ভালো লাগছে। আশা করবো, তারা বাড়ি ফিরলেও প্রতিশোধ নেওয়ার ব্যাপারটা আর ফিরবে না। শান্তি বিরাজ করবে কি-না তা সময়ই বলবে।’

তবে যে কায়দায় কাশ্মীরকে বিভাজিত করা হলো সেটি ঠিক হলো কি-না, সে প্রশ্ন তুলে অপর্ণা লেখেন, ‘এই অগণতান্ত্রিক বিভাজনের পর কাশ্মীর কি আদৌ কাশ্মীর থাকবে?’

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা-সংঘাত, নিম্নবর্ণের মানুষের ওপর নির্যাতন, বর্ণবাদী অসহিষ্ণুতা এবং গণপিটুনির মতো ইস্যুগুলো নিয়ে সমাজের বিভিন্ন অঙ্গনের ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ‘মুক্তচিন্তাকে পিষে মারবেন না’ শিরোনামে গত ২৩ জুলাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে খোলা চিঠি দিয়েছিলেন। এ চিঠি প্রস্তুত করার পেছনে অন্যতম একজন ছিলেন প্রগতিশীল অভিনেত্রী অপর্ণা সেনও। যদিও চিঠিটি দেওয়ার পর থেকে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সভাপতি বা আরএসএসের মতো মৌলবাদী সংগঠনের তীব্র আক্রমণের শিকার হয়েছেন তিনি। তবু দমে না গিয়ে উল্টো কাশ্মীর ইস্যুতে নিজের উদার দৃষ্টিভঙ্গিরই প্রকাশ ঘটালেন অপর্ণা।

এদিকে একটি কবিতা উদ্ধৃত করে অপর্ণা সেনের চেয়ে আরও কড়া কটাক্ষ করেছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যপ। সেই কবিতাটি এমন, ‘একটি সাজানো বাগান নষ্ট করার জন্য একটি উল্লুকই যথেষ্ট, এখানে তো গাছে গাছে উল্লুক, বাগান বাঁচাবে কী করে?’

বিজেপির সমালোচক বলিউড অভিনেত্রী স্বরা ভাস্করকে দেখা গেছে অনুরাগ কাশ্যপের পোস্টটি রিট্যুইট করতে। পাশাপাশি কাশ্মীরে বিপদের মধ্যে পড়া মানুষজনকে সাহায্য করতে চেয়ে দেওয়া বিভিন্ন পোস্টও তাকে রিট্যুইট করতে দেখা গেছে।

কাশ্মীর নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের এ সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছেন দিল্লির জহরলাল নেহেরু ইউনিভার্সিটির (জেএনইউ) সাবেক শিক্ষার্থী এবং কাশ্মীরের বাসিন্দা শেহলা রশিদ। তিনি তার ফেসবুক ও টুইটার পোস্টে আবেদন করেন, ‘দ্রুত উপত্যকায় খুলে দেওয়া হোক যোগাযোগের সমস্ত মাধ্যম।’ পাশাপাশি কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত তুলে নেওয়া এবং জেলবন্দি কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রীসহ প্রত্যেককে মুক্তির দাবি তোলেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ০৮, ২০১৯
ভিএস/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-08 13:41:36