ঢাকা, সোমবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ আগস্ট ২০১৯
bangla news

অনলাইন লেনদেনে অভ্যস্ত হচ্ছেন ভারতীয়রা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-২৯ ১২:১১:১৬ পিএম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

কলকাতা: অনলাইন পেমেন্ট বা ডিজিটাল পেমেন্টে বিশেষ জোর দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। ২০১৬ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রেও সামনে এনেছিলেন নগদ লেনদেনের বদলে ডিজিটাল লেনদেনের যুক্তি। মোদীর দাবি ছিল, এতে আর্থিক স্বচ্ছতা বাড়বে।

সম্প্রতি একটি সমীক্ষা বলছে, বর্তমানে ভারতীয়রা যে অংকের অনলাইন লেনদেন করেন, আগামী চার বছরের মধ্যে তা দ্বিগুণ হবে। ওই সমীক্ষা ইঙ্গিত দিয়েছে, চলতি বছরে এখন পর্যন্ত ভারতে ডিজিটাল লেনদেনের পরিমাণ ৬ হাজার ৪৮০ কোটি মার্কিন ডলার। যা ২০২৩ সালের মধ্যে ১৩ হাজার ৫২০ কোটি মার্কিন ডলারের বেশি হবে।
 
ভারতের প্রথমসারির বণিকসভা এবং একটি শিল্প সংস্থার যৌথ সমীক্ষা বলছে, আগামী চার বছরে ভারতে যে পরিমাণ ডিজিটাল লেনদেন বাড়বে, তা বৃদ্ধির হার পৃথিবীর অন্যসব দেশের হারকে ছাপিয়ে যাবে। যা হবে ২০ দশমিক ২ শতাংশ, দাবি ওই সমীক্ষার। 

তাদের হিসেবে বৃদ্ধির হারে ভারতের পরই থাকবে চীন ও যুক্তরাষ্ট্র। চীনের বৃদ্ধি হার দাঁড়াতে পারে ১৮ দশমিক ৫ শতাংশ এবং যুক্তরাষ্ট্রের ৮ দশমিক ৬ শতাংশ। অবশ্য বৃদ্ধির হারের নিরিখে ভারত এগিয়ে গেলেও, মোট লেনদেনের অংকে দেশটি খানিকটা পিছিয়ে থাকবে।
 
এছাড়া ওই সমীক্ষায় দাবি, ডিজিটাল কমার্স, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্টারনেট অব থিংস, রিয়েল টাইম পেমেন্টস-এর মতো প্রযুক্তিকে কাজে লগিয়ে যেভাবে পেমেন্ট দুনিয়ায় নিত্যনতুন উদ্ভাবন হচ্ছে, তা ভারতকে অনেকটা এগিয়ে নিয়ে যাবে আগামী দিনে।
 
টেলিকম সংস্থা, সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক, পেটিএম-ফোনপে-গুগল পে-র মতো ওয়ালেট কোম্পানি এবং ই-কমার্স ব্যবসা ডিজিটাল লেনদেনকে সবচেয়ে বেশি অক্সিজেন জোগাচ্ছে। আর এ পদ্ধতিতে ধীরে ধীরে অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন ভারতীয়রা।

বাংলাদেশ সময়: ১২০৮ ঘণ্টা, জুন ২৯, ২০১৯
ভিএস/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

কলকাতা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-06-29 12:11:16