ঢাকা, বুধবার, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, ১৯ জুন ২০১৯
bangla news

পদত্যাগ করতে চেয়েছি, দল মানেনি: মমতা

ভাস্কর সরদার, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৫ ৮:৫৭:০৬ পিএম
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। ছবি: বাংলানিউজ

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। ছবি: বাংলানিউজ

কলকাতা: সদ্য অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির কাছে পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু আসন খোয়ানোর দায় কাঁধে নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে অব্যাহতি নিতে চেয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা বন্দোপাধ্যায়। কিন্তু তার দলের শীর্ষ নেতৃত্ব তা মানেনি।

শনিবার (২৫ মে) বিকেলে কলকাতার কালীঘাটে নিজের বাসভবনে তৃণমূলের বিজয়ী ও বিজিত প্রার্থীদের নিয়ে হাইকমান্ডের বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মমতা। 

সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তৃণমূলের লোকসভা আসন হারানো নিয়ে এ বৈঠক ডাকা হয়। ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনের মধ্যে তৃণমূল পেয়েছিল ৩৪টি, আর বিজেপি পেয়েছিল মোটে ২টি। এবার বিজেপি সারাদেশে পদ্মফুল ফোটানোর পাশাপাশি ‘বাংলা’য় আসন দখল করেছে ১৮টি। আর তৃণমূলের আসন এখানে কমে হয়েছে ২২টি।

২০২১ সালে অনুষ্ঠেয় পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের আগে ভোটের এমন গতি-প্রকৃতি বদল তৃণমূলের প্রতি বিজেপির বার্তা বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। বিধানসভায় বিজয়ী দলই রাজ্যের সরকার গঠন করে। কেন্দ্রীয় নির্বাচনে বিজেপির ভোট উর্ধ্বমুখী বলে বিধানসভা নির্বাচনেও সরকার গঠনের মতো ভোট পাওয়ার আশায় দিন গুনছে পদ্মফুলের হাইকমান্ড।

পশ্চিমবঙ্গে সরকার চালানোর ক্ষেত্রে বিজেপির পক্ষ থেকে বাঁধা পাওয়ার অভিযোগ তুলে মমতা বলেন, আমি ইস্তফা দিতে চেয়েছি। পাঁচ মাস ধরে ওরা (বিজেপি) আমাকে কাজ করতে দেয়নি। কিন্তু দল চায় না ইস্তফা দেই। 

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলে তৃণমূল প্রধান বলেন, বিজেপি প্রচুর টাকা এখানে ঢেলেছে। নির্বাচন কমিশনকে ওরা কিনে নিয়েছে। তাই পশ্চিমবঙ্গে ১৮টা আসন পেয়েছে। 

বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলেরই জয়ের প্রত্যাশা ব্যক্ত করে টানা দু’বারের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলা দখল করা এতো সহজ নয়। ২০২১ সালে আমরাই ক্ষমতায় আসবো।

বিজেপির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুবিরোধী অবস্থানের অভিযোগ তুলে মমতা বলেন, আমি সংখ্যালঘুদের পাশেই আছি। মিটিং শেষে আমি এখন ইফতারে যাবো। সংখ্যালঘুরা আমাদের সঙ্গে আছে। আমরা কাউকে ভয় পাই না।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৯ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০১৯
ভিএস/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-25 20:57:06