ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৭ জুন ২০১৯
bangla news

নির্বাচনী ‘কুরুক্ষেত্রে’ মুখোমুখি মোদী-মমতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-০৩ ৩:৩৮:০৩ পিএম
নরেন্দ্র মোদী ও মমতা ব্যানার্জি

নরেন্দ্র মোদী ও মমতা ব্যানার্জি

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে লোকসভা নির্বাচনী মহারণে বুধবার (০৩ এপ্রিল) নামছেন দু’পক্ষের দুই মহারথী। পশ্চিমবঙ্গে একই সময়ে পিঠাপিঠি সভা করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিরোধী জোটের কাণ্ডারি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবারের সভাগুলো ভারতের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির নিরিখে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ফলে গোটা ভারতের রাজনৈতিক মহল, মিডিয়া থেকে সাধারণ মানুষের নজর থাকবে পশ্চিমবঙ্গের দিকে। 

উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়ি ও কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে মাত্র দুই ঘণ্টার ব্যবধানে পরপর দুটি সভা করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। যা এক কথায় বেনজির। 

একই সময়ে শিলিগুড়ির কিছুটা দূরে উত্তরবঙ্গের কোচবিহার জেলার দিনহাটায় সভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

এ সব জনসভা নিয়ে বাড়তি উৎসাহের কারণ অবশ্যই ২০১৯ লোকসভায় পূর্ব ভারতের আসনগুলোর প্রবল গুরুত্ব। এরমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি লোকসভা আসনের ফলাফল ঠিক করে দিতে পারে কোন পক্ষ আগামী পাঁচ বছর দেশ পরিচালনা করবে। 

এই মহাতারকাদের সভা নিয়েই দুই দলের অন্দরে তৎপরতা রয়েছে তুঙ্গে। বিগত নির্বাচনগুলোর ফলাফলে রাজ্যের উত্তরবঙ্গে কিছুটা প্রাধান্য বিস্তার করতে পেরেছে বিজেপি।

অন্যদিকে উত্তরবঙ্গের পাহাড় ও সমতলে নিজেদের খাস তালুক ধরে রাখতে প্রাণপণ চেষ্টা করছে তৃণমূল।

একদিকে যেমন লক্ষ্য থাকবে এই জনসভা থেকে পশ্চিমবঙ্গের জনগণকে কি বার্তা দিতে চান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, ঠিক সেভাবেই নজর থাকবে দিল্লীর রাজনীতিতে নেতৃত্বে 'ইউনাইটেড ইন্ডিয়া সরকারে’র কি পরিকল্পনা রাজ্যের মানুষের কাছে তুলে ধরেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতার লক্ষ্য পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনের মধ্যে সবকটিতে জেতা। যদি এই ফলাফল বাস্তবে রূপায়িত হয় তবে সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে একটি আঞ্চলিক দল হিসেবে সর্বোচ্চ শক্তিশালী অবস্থান দখল করবে তৃণমূল।

দুই রাজনৈতিক মহাতারকার জনসভা নিয়ে প্রচারের ঢেউ তুলেছে তৃণমূল ও বিজেপি। জানা যায়, ছয় হাজার বাস ভাড়া করে কর্মী সমর্থকদের কলকাতার ব্রিগেড মুখী করবে বিজেপি এবং প্রথমবার পশ্চিমবঙ্গের কোনো মাঠ ভরাট করতে ৪টি লোকাল ট্রেনও ভাড়া করেছে। 

মোদীকে স্বাগত জানাতে ইতোমধ্যে গেরুয়া পতাকা ও কাটআউটে সেজেছে ব্রিগেড ময়দান। এই প্রথম ব্রিগেডে বসানো হয়েছে ছাউনি। প্রায় ২৫ লাখ বর্গফুট জায়গা অ্যালুমিনিয়ামের ছাউনিতে ঢেকেছে বিজেপি।  

মোদীর সভা প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'কোনো অঙ্কেই আর বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারছে না। এই বিষয়ে আমি ১০০ শতাংশ নিশ্চিত।’

দুই দলই আশা করছে, তাদের সভায় জনসমাগম আগের রেকর্ড ছাপিয়ে যাবে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০১৯
ভিএস/এমএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মানিকগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

কলকাতা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-04-03 15:38:03