ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে প্রথম দফার ভোট গ্রহণ চলছে

রক্তিম দাশ. সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০২৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০১১
পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে প্রথম দফার ভোট গ্রহণ চলছে

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার প্রথম দফা ভোট গ্রহণ সোমবার শুরু হয়েছে। উত্তরের ৬টি জেলার ৫৪টি আসনে সকাল ৭টা থেকে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে ভোট গ্রহণ শুরু হয়।



উত্তরের এই ৫৪টি কেন্দ্রের ফলাফলের দিকে নজর রাখবে সব রাজনৈতিক দলই। প্রকৃত পক্ষে বামফ্রন্ট বা তৃণমুল জোট যারাই এখানে বেশি আসন পাবে তারাই এগিয়ে যাবে রাজ্যের ক্ষমতা দখলের দিকে।

৫৪টি কেন্দ্রে মোট ৯৭ লাখ ৫২ হাজার ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। মোট বুথের সংখ্যা ১২ হাজার ১৩১টি। এর জন্য নিয়োগ করা হয়েছে ৬২ হাজার ৫০০ ভোটকর্মী। নিরাপত্তা রক্ষায় ৫৩৯ কোম্পানি আধা সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

দর্জিলিং জেলার ১৬ টি দুর্গম বুথে শনিবার রাতেই ভোট কর্মীরা পৌঁছান। এর মধ্যে ১৪টি কার্শিয়াং ও দার্জিলিং ২টি বুথ।

ভোটের জন্য উত্তরের লাগোয়া নেপাল, ভুটান ও বাংলাদেশ সীমান্ত সীল করে দেওয়া হয়েছে শনিবার সন্ধ্যা থেকে। এর ফলে গুরুত্বপূর্ণ হিলি স্থল বন্দর বন্ধ রয়েছে। সীমান্তে বিএসএফ ও সীমাসুরক্ষা দল বিশেষ অবস্থান নিয়েছে।

প্রথম ১ ঘণ্টায় ভোট দিয়েছেন শিলিগুড়িতে রাজ্যের পুরমন্ত্রী সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য, মালদায় কংগ্রেস নেতা আবু হাসেম খান চৌধুরী, কংগ্রেস সাংসদ মৌসম বেনজির নুর।

সকালে জলপাইগুড়ি, মালদা, দার্জিলিং ও দক্ষিণ দিনাজপুরে কয়েকটি বৈদ্যুতিক ভোটযন্ত্র খারাপ বের হলে সঙ্গে সঙ্গে তা বদলে দেওয়া হয়।

ইসির কাছে প্রথম একঘণ্টায় দুটি অভিযোগ জমা পড়েছে।

কোচবিহার জেলার দিনহাটার তৃণমুল জোট প্রার্থী এনসিপির অমিয় সরকার অভিযোগ করেছেন, তার কেন্দ্রে ফরওয়ার্ড ব্লকের কর্মীর দলীয় মার্কা সিংহ লাগানো ব্যাজ পড়ে ভোট দিচ্ছেন।

কোচবিহারের নাটাবাড়িতে সিপিএম অভিযোগ করেছে, ভোটারদের তৃণমূল বাধা দিচ্ছে। এই নিয়ে সেখানে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

এই ৫৪টি কেন্দ্রের মধ্যে বেশ কয়েকটি নজরকাড়া কেন্দ্র রয়েছে। শিলিগুড়িতে লড়াই করছেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য, কোচবিহারের মাথাভাঙায় বনমন্ত্রী অনন্ত রায়, আলিপুরদুয়ারে পূর্তমন্ত্রী ক্ষিতি গোস্বামী, উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারে অসামরিক প্রতিরক্ষামন্ত্রী শ্রীকুমার মুখার্জি, দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে সমাজকল্যাণমন্ত্রী বিশ্বনাথ চৌধুরী ও মালদা রতুয়া কেন্দ্রে আছেন পরিবশেমন্ত্রী শৈলেন সরকার।

প্রথম দফার নির্বাচনে এবার নানা কারণে দার্জিলিং পাহাড়ের ৩টি কেন্দ্রের দিকে নজর থাকবে। বেশ কয়েকবছর পর এবারই পাহাড়ে প্রকাশ্য জনসভা করেছে সিপিএম ও পার্বত্য পরিষেদের সাবেক চেয়ারম্যান সুভাষ ঘিসিং।

সবকিছুর পরও উত্তরের জেলাগুলির নির্বাচনে বামবিরোধী জোট নিয়ে ধোঁয়াশা রয়ে গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা এর সর্বশেষ

Alexa