bangla news

দার্জিলিং শহরে সিপিএম’র প্রকাশ্য জনসভা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৪-১৪ ১১:৫৫:২৮ পিএম

পাহাড়ে পৃথক রাজ্যের দাবিদার গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার ভয়ভীতি উপেক্ষা করে দীর্ঘ কয়েক বছর পর দার্জিলিং শহরে প্রকাশ্য জনসভা করেছে সিপিএম।

কলকাতা: পাহাড়ে পৃথক রাজ্যের দাবিদার গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার ভয়ভীতি উপেক্ষা করে দীর্ঘ কয়েক বছর পর দার্জিলিং শহরে প্রকাশ্য জনসভা করেছে সিপিএম।

জনসভায় সিপিএম প্রার্থী কেবি ওয়াতারের সমর্থনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দলের পলিটব্যুরোর সদস্য ও সাংসদ সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, রাজ্য ভাগের কোনো প্রশ্নই নেই। রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি স্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠিত করতে হবে পাহাড়ে। আলোচনার মাধ্যমেই এই সমস্যার সমাধান হবে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার সভা শুরু কথা থাকলেও কার্শিংয়ায়ে সড়ক অবরোধ করে রাখে মোর্চা। অবশেষে বিকাল ৫টায় দার্জিলিং শহরের চকবাজারের সভাস্থলে পৌঁছান ইয়েচুরি। এই ৫ ঘণ্টা ধরে তার জন্য অপেক্ষা করেন অসংখ্য সাধারণ মানুষ।

পাহাড়ের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এদিন সিপিএমের কর্মী-সমর্থকরা জড়ো হয়েছিলেন। যাদের অধিকাংশই ছিলেন তরুণ।

তিনি বলেন, মোর্চার আন্দোলনের ফলে পাহাড়ের অনেক ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে পর্যটন শিল্পের। পাহাড়ে অনেক বেকার রয়েছেন। তাদের জন্য ভাবতে হবে। বিভেদের রাজনীতি নয়। পাহাড়ে শান্তি ও গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার গঠিত হবেই। আর এই সমস্যার বামফ্রন্ট সরকারই করবে। দার্জিলিং-এ এসে রেলমন্ত্রী অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু তার কোনোটাই বাস্তব রূপ পায়নি। অন্যদিকে সমতলে মোর্চা তৃণমূলকে সমর্থন করছে।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন সিপিএম প্রার্থী কেবি ওয়াতার, সিপিএম নেতা বি এল সুব্বা ও রাজ্যসভার সদস্য সমন পাঠক।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৪৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-04-14 23:55:28