bangla news

নির্বাচন লুট করতে চাইছে সিপিএম: মমতা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৪-০৬ ১১:২৮:৫৬ এএম

ভারতের রেলমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি অভিযোগ করে বলেছেন, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয় হচ্ছে জেনেই নির্বাচন লুট করতে চাইছে সিপিএম।

কলকাতা: ভারতের রেলমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি অভিযোগ করে বলেছেন, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয় হচ্ছে জেনেই নির্বাচন লুট করতে চাইছে সিপিএম।

বুধবার সন্ধ্যায় কলকাতায় তৃণমূলের ডাকা এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি।

মমতা বলেন, ‘পুলিশের একটা অংশ সিপিএমের সঙ্গে যুক্ত। এখানে ৩৫ বছরের দুঃশাসনে রাবনের শাসন চলছে। এরা চলে যাচ্ছে বলে হনুমানের মতো লেজে আগুন লাগিয়ে লঙ্কাকাণ্ড করছে।’

গত সোমবার বর্ধমানের জামুরিয়ায় নিহত কাজী রবিনের টেনে এনে এ দিন মমতা বলেন, প্রতিদিনই আমাদের প্রার্থীরা প্রচার চালাতে গিয়ে সিপিএমের আক্রমণের শিকার হচ্ছে। আজ ঘাটাল ও কেশপুরে প্রার্থীরা আক্রান্ত হয়েছেন। শিলিগুড়িতে দলের কার্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। ব্যালেন্স করে সিপিএম নেতা-কর্মীরা উত্তেজনা ছড়াচ্ছে।

এসবের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে দায়ী করেন তিনি।

এ সময় তিনি দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, সিপিএমের প্ররোচনায় পা দেবেন না। রাজনৈতিকভাবে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে আমরা ওদের মোকাবিলা করব। ধৈর্য ধরে থাকবো আরও একমাস।’

উত্তরের জেলাগুলোতে নির্বাচনী প্রচারে আগামী ৯ এপ্রিল থেকে মাইক ব্যবহারে কলকাতার হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছেন- সে রায়কেও তিনি স্বাগত জানান।

তিনি বলেন, ‘উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সূচি ইচ্ছা করেই এমনভাবে করা হয়েছে যাতে প্রচারে মাইক ব্যবহার না করা যায়।’

মমতা ব্যানার্জি এ দিন উত্তরের জেলাগুলোতে তার সফরসূচি ঘোষণা করেন।

১০ এপ্রিল মালদা, ১১ এপ্রিল উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর, ১২ এপ্রিল জলপাইগুড়ি, ১৩ এপ্রিল কোচবিহার, ১৪ এপ্রিল দার্জিলিং, ১৬ ও ১৭ নদীয়া, ১৯ এপ্রিল বীরভূম ও ১৯ এপ্রিল দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগণা ও কলকাতায় দলীয় প্রার্থী ও জোট প্রার্থীদের তরফে প্রচারে বের হবেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৬, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-04-06 11:28:56