ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯ সফর ১৪৪৩

ইচ্ছেঘুড়ি

সারা গায়ে আমরাও আলকাতরা মেখে একাকার হয়ে গেলাম

মুহম্মদ জাফর ইকবাল | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১০
সারা গায়ে আমরাও আলকাতরা মেখে একাকার হয়ে গেলাম

ছোট্টবেলায় নানাবাড়ির প্রতি ছিল আমাদের বিশেষ আকর্ষন। ঈদ আসতে না আসতেই আমরা নানাবাড়ি যাবার বায়না ধরতাম।

একবার সেখানে গিয়ে মজার এক কাণ্ড ঘটেছিল। নানাবাড়ি যাওয়ার পর মামা নৌকার কারিগর নিয়ে এলেন। কারিগর বেশ চলনসই একটি নৌকা তৈরি করে দিলেন। আলকাতরা মাখিয়ে ছিদ্রহীন করা হলো নৌকাটা। কিন্তু আমাদের ধৈর্য সইছিলো না। আলকাতরা মাখাতে না মাখাতেই আমরা নৌকা পানিতে নামিয়ে ফেললাম। নৌকার মতো সারা গায়ে আমরাও আলকাতরা মেখে একাকার। তারপর যে মজাটা হলো, কী বলবো! নদীর ঠিক মাঝখানে স্রোতের মাঝে নৌকা তীরের মতো ছুটে চলছে। আমরা হাল ধরে রেখেছি। ঝপ ঝপ বৈঠা ফেলে নৌকা নিয়ে যাচ্ছি। হাতে বানানো পাল টানিয়ে দিতেই হঠাৎ নৌকা চরকির মতো ঘুরে গেল। আর আমরা সবাই টুপ টুপ করে এক্কেবারে পানিতে। ভরা নদীতে ডুবে গিয়ে আমি কী করে যে রক্ষা পেয়েছিলাম জানি না। মজার হলেও এটা আমার কাছে খুবই ভয়ংকর স্মৃতি।

এখনকার শিশুদের টেলিভিশন কেন্দ্রিক ঈদ মন খারাপ করে দেয়।

-বরাবরই আমার আপত্তি টেলিভিশন মাধ্যমটিতে। টেলিভিশন দেখতে হলে সেখানে মনোযোগ দিতে হয় না। সেটিই আমাদের মনোযোগ আটকে রাখে। কাজেই কেউ যদি জীবনের একটা বড় অংশ টেলিভিশনের সামনে কাটায় তার জন্য মনোযোগ দেওয়া বিষয়টি কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। আর মনোযোগ হলো আমাদের মনন বিকাশের প্রথম ধাপ। শুধু তাই নয়, টেলিভিশনের চটকদার অনুষ্ঠান দেখে শিশু সমস্ত পৃথিবীর কাছেও একই ব্যাপার আশা করবে। আর যখন সে বাস্তবে ফিরে আসবে তখন পৃথিবীটাকে মনে হবে বড় সাদামাটা।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa