ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ সফর ১৪৪২

ইচ্ছেঘুড়ি

ঈশপের গল্প

মনিব ও তার পোষা প্রাণীদের দুঃখ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০১৯
মনিব ও তার পোষা প্রাণীদের দুঃখ প্রতীকী ছবি

এক গ্রামে ছোট একটি ঘরে বাস করতেন এক ব্যক্তি। কয়েকটি ভেড়া, ছাগল, কুকুর ও একটি ষাঁড় পালতেন তিনি। একদিন প্রচণ্ড এক ঝড় এলো গ্রামে। ঝড়ের কারণে লোকটি তার ঘরেই গেলেন আটকে।

এভাবে কয়েকদিন কেটে গেলো। ঝড়ো হাওয়া কিছুতেই থামছে না।

এদিকে ঘরের সব খাবার শেষ হয়ে গেছে। নিজের ও তার পরিবারের খাবার জোগাড় করার আর কোনো উপায় না পেয়ে লোকটি তার পালিত ভেড়াগুলোকেই এক এক করে মেরে খেয়ে ফেলতে লাগলেন।  

তারপরও ঝড় থামার কোনো লক্ষণ নেই। ক্ষুধা মেটানোর জন্য লোকটি এবার মারলেন তার পালিত ছাগলগুলোকে।  

...ঝড় আরও তীব্র আকার ধারণ করলো। ঘর থেকে বের হয়ে খাবার খোঁজার কোনো উপায় নেই। এক পর্যায়ে লোকটি তার হালচাষের ষাঁড়কেই মেরে খেয়ে ফেললেন।  

অনেক বছর ধরে লোকটিকে হালচাষে সাহায্য করেছে ষাঁড়টি। এই উপকারী ষাঁড়কে হত্যা করতে দেখে তার পালিত কুকুরগুলো ভয় পেয়ে গেলো। নিজেদের বাঁচাতে কী করবে আলোচনা করতে তারা জরুরি বৈঠক ডাকলো।  

বৈঠকে একটি কুকুর বললো, আমাদের এখান থেকে চলে যাওয়া উচিত। মনিব তার এত উপকারী ষাঁড়কেই মেরে খেয়ে ফেলেছেন। এরপর আমাদের পালা! উনি নিশ্চয়ই আমাদের ছেড়ে দেবেন না।   

শিক্ষণীয় বিষয়: উপকারীর অপকার করতে যে দ্বিধা করে না, তাকে বিশ্বাস করা উচিত নয়।  

বাংলাদেশ সময়: ২০২১ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০১৯
এফএম/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa