ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

ইচ্ছেঘুড়ি

নকল রাজা (পর্ব-১)‍ | বিএম বরকতউল্লাহ্

গল্প/ইচ্ছেঘুড়ি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৪১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০১৭
নকল রাজা (পর্ব-১)‍ |  বিএম বরকতউল্লাহ্ নকল রাজা

কুকুরের যন্ত্রণায় অস্থির। গ্রামের মানুষ গেল ক্ষেপে। লাঠি, বেন্দা, শাবল, খুন্তি যে যা হাতের কাছে পেয়েছে তাই নিয়ে শুরু করলো বাড়ি। কয়েকটা কুকুর সঙ্গে সঙ্গেই শেষ। কয়েকটার অবস্থা মর মর। আর কয়েকটা ল্যাংড়া হয়ে চিঁচিঁ-কোঁ-ক্যাঁ করছে। কুকুরের ওপর দিয়ে একটা ঝড় বয়ে গেল।

একটা কুকুর আর একটা কুকুরি কোন ফাঁকে কেমন করে যেন পালিয়ে গেল। তারা গ্রাম ছেড়ে এক বনের পাশে গিয়ে দাঁড়ালো।

একটা গাছের ছায়ায় বসে তারা বেদম হাঁপাতে লাগলো।
 
অনেক ক্ষুধা এদের পেটে। আর শরীরেও নেই তেমন শক্তি।
কুকুরটা বলে, পায়ের জোরে কোনোমতে জীবন বাঁচালাম, এখন ক্ষুধা থেকে বাঁচি কীভাবে।

কুকুরি বলে, মানুষ আমাদের ওপর খুব রেগে আছে। এখন কোনো গ্রামে আশ্রয় নেওয়া ঠিক হবে না- চলো আমরা পাশের ওই বনে চলে যাই।
 
তারা বনের পাশে গিয়ে উঁকি দিয়ে দেখে, বনের ভেতরে নানা জাতের ছোট ছোট পশু-পাখি আছে। তারা যার যার মতো করে চলছে। কুকুর আর কুকুরি আরেকটু এগিয়ে গেল। সামনে এগুতেই দেখে কয়েকটা শেয়াল বসে কি যেন বলাবলি করছে।
 
এক শেয়াল কান খাঁড়া করে বললো, কে? কে তোমরা এখানে এসে ইতিউতি করছ?

কুকুরি খুব নরম সুরে বললো, ভাই শেয়াল তোমরা আমাদের চিনতে না পারলেও আমরা ঠিকই তোমাদের চিনতে পারছি।

আরেকটা বয়স্ক শেয়াল কাছে এসে বললো, তোমাদের নাম-পরিচয় বলো, শুনি।

আমাদের নাম কুকু, বললো কুকুরটা।

নকল রাজাকুকুরি বলল, কুকু আমাদের আসল নাম না, মানুষ আমাদের আদর করে কুকু বলে ডাকে। আমাদের আসল নাম হলো, কুকুর।
শেয়াল কান খাঁড়া করে বললো, মানুষ তোমাদের আদর করে? আবার আদর করে কুকু বলেও ডাকে? ভারি মজার কথা তো? আমরা তো মানুষের ভয়ে বন থেকে বের হতে পারি না। তো তোমরা এখানে কী চাও?
 
কুকুরি বলল, আমরা তোমাদের সঙ্গে থাকতে চাই। কারণ গ্রামের মানুষকে শান্তি দেওয়ার কাজ শেষ-এখন বনে শান্তি বিতরণ করতে এসেছি আমরা।
 
শান্তি? শেয়ালেরা চোখ গোল করে বলে, আমরা তো শান্তিতেই আছি। এখানে কোন অশান্তি নেই। যাও, আমাদের এ শান্তির বনে তোমাদের কোনো দরকার নেই। যেখানে শান্তি নেই সেখানে গিয়ে শান্তি বিতরণ করো গে।
 
কুকুরি বললো, আরে ভাই তোমরা যেভাবে আছ, তাকেই বলছো শান্তিতে আছি। সুখ-শান্তির কি শেষ আছে। আমরা বনে সবার মাঝে এমন সুখ আর শান্তি বিলিয়ে দেবো যে তোমরা আফসোস করে বলবে, হায়রে, আগে যদি তোমাদের পেতাম, তো জীবন কতো সুন্দর আর আনন্দময় হতো।
 
শেয়ালেরা নিজেদের মধ্যে পরামর্শ করে বললো, আচ্ছা তোমরা থাকো আমাদের সাথে। আমরা দেখতে চাই, এ বনে তোমরা কেমন সুখ আর শান্তি বিলিয়ে দিতে পার।
 
কুকুরেরা বনে থাকতে শুরু করলো।

চলবে....

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০১৭
এএ

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।