ঢাকা, শুক্রবার, ৬ কার্তিক ১৪২৮, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইসলাম

দৃষ্টিনন্দন সেই মসজিদে জুমার নামাজ পড়লেন মুসল্লিরা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ২, ২০২১
দৃষ্টিনন্দন সেই মসজিদে জুমার নামাজ পড়লেন মুসল্লিরা আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদে জুমার রামাজ আদায় করছেন মুসল্লিরা। ছবি: বাংলানিউজ

সিরাজগঞ্জ: প্রায় ১০ হাজার মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়ে উদ্বোধন হলো ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন সেই মসজিদটি।  

শুক্রবার (০২ এপ্রিল) বেলা পৌনে ২টার দিকে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার মুকুন্দগাঁতী এলাকায় ‘আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ’ নামে নির্মিত মসজিদে জুমার নামাজ শুরু হয়।

ঢাকা সার্কিট হাউজ জামে মসজিদের খতিব ড. আরিফ উদ্দিন মারুফ এতে ইমামতি করেন।

এর আগে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী কোরআন হাদীস থেকে আলোচনা করেন তিনি। নামাজ শেষে মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত মোহাম্মদ আলী সরকারের আত্মার এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মমিন মণ্ডল।  

জুমার নামাজে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, পূর্বাণী গ্রুপ ও ঢাকা ব্যাংকের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই সরকার, টেক্সজেন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ আব্দুস ছালাম, প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত মোহাম্মদ আলী সরকারের দুই ছেলে আমান উল্লাহ সরকার ও আমির হামজা সরকার, দুই ভাই শিল্পপতি আলতাব হোসেন সরকার ও আক্তার হোসেন সরকার, বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সাজেদুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আনিসুর রহমান, উল্লাপাড়ার ইউএনও দেওয়ান মওদুদ আহম্মেদ ও বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফাসহ বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা বিপুল সংখ্যক ওলামায়ে কেরামগণ।  

মসজিদের ভেতরে ৫ হাজার মুসল্লির নামাজ আদায়ের জায়গা থাকলেও এদিন কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে বাইরে সমসংখ্যক মুসল্লি নামাজ আদায় করেছেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।  

জানা যায়, সিরাজগঞ্জ শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে বেলকুচি পৌর এলাকার মুকুন্দগাঁতী মহল্লায় সিরাজগঞ্জ-এনায়েতপুর সড়কের পশ্চিম পাশেই আড়াই বিঘা জমির উপর নির্মিত হয়েছে ‘আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদটি’। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে এই মসজিদ নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন বিশিষ্ট শিল্পপতি মোহাম্মদ আলী সরকার। গত বছরের আগস্ট মাসে তার মৃত্যু হয়। পরে তার ছেলে আমানউল্লাহ সরকার মসজিদটির কাজ এগিয়ে নেন। সাড়ে চার বছর ধরে প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ মসজিদটির নির্মাণশৈলী ইতোমধ্যে হাজারও মানুষের দৃষ্টি কেড়েছে।  

** উদ্বোধনের আগেই দৃষ্টি কেড়েছে ৩০ কোটি টাকার মসজিদটি

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ০২, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa