bangla news

‘নতুন আইন নিয়ে সর্বোচ্চ হজযাত্রী পাঠানো দেশের মত নিন’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-০৫ ৩:৩৫:৫৮ পিএম
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

ঢাকা: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ বলেছেন, আল্লাহর মেহমান হাজি সাহেবদের সেবায় নিয়োজিত হওয়া এবাদতের অংশ। তাদের সেবায় সর্বোচ্চ আন্তরিকতা নিয়ে কার্যক্রম চালাতে হবে। হজ ব্যবস্থাপনার নতুন নিয়ম বা আইন করার আগে সর্বাধিক হজযাত্রী প্রেরণকারী দেশগুলোর সঙ্গে সৌদি সরকার আলোচনা করলে হজযাত্রীরা আরো বেশি উপকৃত হবেন।

মঙ্গলবার (০৫ নভেম্বর) লন্ডনে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী বিশ্ব হজ ও ওমরা সম্মেলনের দ্বিতীয়দিনে বৃটিশ পার্লামেন্টের হাউজ অব লর্ডসের স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাকক্ষে হজ ও ওমরাহ বিষয়ে মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সভায় হজ ও ওমরাহ যাত্রীদের পরিবহন, আবাসন, ক্যাটারিং সার্ভিস ও মিনা-আরাফাত, মোজদালিফায় হাজিদের নানা সমস্যা এবং তা সমাধানের কৌশল নিয়ে  আলোচনা করা হয়।

বাংলাদেশি হজ ও ওমরাহ যাত্রীদের মোবাইল সিম ব্যবহারে যুক্তরাজ্যের একটি মোবাইল কোম্পানির অনুরোধের প্রেক্ষিতে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, হজযাত্রীরা আল্লাহর মেহমান, সেবার পরিবর্তে তাদের নিয়ে ব্যবসার চিন্তা করা অনৈতিক। 

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী ২০২০ সালের হজ ব্যবস্থাপনা হবে সর্বোত্তম। এ জন্য সর্বোচ্চ হজযাত্রী প্রেরণকারী দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের মতবিনিময় অব্যাহত থাকবে।’

সভায় উপস্থিত বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা ২০১৯ সালে বাংলাদেশের অর্ধেকের বেশি হজযাত্রীর ইমিগ্রেশন সৌদি আরবের পরিবর্তে ঢাকায় সম্পন্ন করা এবং তাদের লাগেজ পরিবহন ব্যবস্থা উন্নত করে বাংলাদেশের হজ ব্যবস্থাপনার প্রশংসা করেন।

সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হাউজ অব লর্ডসের সদস্য মঞ্জিলা ব্যারোনেস উদ্দিন। এর আগে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আব্দুল্লাহ বৃটিশ পার্লামেন্টে এসে পৌঁছলে তাকে স্বাগত জানান মঞ্জিলা।

মতবিনিময় সভায় জেদ্দায় নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের কনসাল জেনারেল, সৌদি আরব, সুদান, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও নাইজেরিয়াসহ ২৫টি দেশের হেড অব ডেলিগেশন ও তাদের সফরসঙ্গী, হজ এজেন্সিজ, বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী ও যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত কাউন্সিলর (রাজনৈতিক) দেওয়ান মাহমুদুল হক এ আন্তর্জাতিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩১ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৫, ২০১৯
এমআইএইচ/এমএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

ইসলাম বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-11-05 15:35:58