bangla news

না’গঞ্জে রমজানের প্রথম জুমায় মুসল্লিদের ঢল

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-১০ ৩:২৩:৫৮ পিএম
নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসছেন মুসল্লিরা। ছবি: বাংলানিউজ

নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসছেন মুসল্লিরা। ছবি: বাংলানিউজ

নারায়ণগঞ্জ: রমজান মানে রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস। এ মাস জুড়ে সৃষ্টিকর্তার কাছে সব ধরনের গুনাহ মাফের আশায় দু’হাত তুলে দোয়া করেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। রমজান মাসে অন্য সময়ের তুলনায় বরকত অনেক বেশি। এসময় একটি নেকীর কাজ করলে বান্দার আমলনামায় যোগ হয় ৭০টি নেকী।

শুক্রবার (১০ মে) চলতি বছর রমজানের প্রথম জুমায় প্রচণ্ড তাপদাহ উপেক্ষা করে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের উপস্থিতিতে পরিপূর্ণ হয়ে উঠেছিল নারায়ণগঞ্জের মসজিদগুলো। সব মসজিদেই দেখা গেছে, মুসল্লিদের ভিড় মসজিদ পেরিয়ে সড়কে চলে এসেছে। সবার উদ্দেশ্য, আল্লাহর দরবারে হাজিরা দেওয়ার পাশাপাশি সব অপরাধের ক্ষমা প্রার্থনা ও সুন্দর ভবিষ্যৎ কামনা।

মসজিদগুলোতে নামাজের আগে বিশেষ বয়ান হয়। পরে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করেন মসজিদের ইমাম। মোনাজাতে মুসল্লিদের বিভিন্ন গুনাহ উল্লেখ করে তা থেকে মুক্তি চাওয়া হয়। এসময় মৃত, অসুস্থসহ দেশ, জাতি ও বিশ্ববাসীর শান্তি-সমৃদ্ধি কামনায় দোয়া করা হয়।

নামাজের পর মোনাজাতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন অনেক মুসল্লি। বয়স্ক, যুবক, তরুণ, কিশোর সব বয়সের মানুষকেই দেখা গেছে মোনাজাতে কান্নাকাটি করে সৃষ্টিকর্তার কাছে মার্জনা চাইতে। 

নামাজের পর মুসল্লিদের অনেকেই বিভিন্ন কবরস্থানে গিয়ে আপনজনদের কবর জিয়ারত করেছেন। এসময় কান্নাজড়িত কণ্ঠে কবরের পাশে দাঁড়িয়ে দোয়া-দুরুদ পড়ে তারা কবরবাসীর জন্য জান্নাত ও নাজাত প্রার্থনা করেন। অনেকে কবরের পাশে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে কোরআনের বিভিন্ন আয়াত ও সূরা তেলাওয়াত করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২০ ঘণ্টা, মে ১০, ২০১৯
একে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-05-10 15:23:58