ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

ইসলাম

নারীর পরচুলা ব্যবহার প্রসঙ্গে ইসলাম

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩২১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭
নারীর পরচুলা ব্যবহার প্রসঙ্গে ইসলাম নারীদের জন্য কোনো মানুষের চুল পরচুলা হিসাবে ব্যবহার করা নাজায়েজ

নারীদের জন্য কোনো মানুষের চুল পরচুলা হিসাবে ব্যবহার করা নাজায়েজ। হাদিস শরিফে এ ব্যাপারে কঠিন ধমকি এসেছে। হজরত নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, আল্লাহতায়ালা অভিশাপ করেন ওই নারীর প্রতি যে (অন্য নারীকে) চুল লাগিয়ে দেয় এবং যে নারী নিজে চুল লাগায়। -সহিহ বোখারি: ৫৯৩৩

অবশ্য পরচুলা যদি কোনো মানুষের চুল না হয়ে শোকর ব্যতীত অন্যকোনো পশুর হয় অথবা কৃত্রিম চুল হয় তাহলে তা ব্যবহার করা অবৈধ নয়।  

সাহাবি হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, পশম দিয়ে তৈরি পরচুলা ব্যবহার করতে সমস্যা নেই।

-মুসান্নাফে ইবনে আবি শাইবা: ২৫৭৪৩

সুনানে আবু দাউদের বর্ণনায় এসেছে, হজরত সাঈদ ইবনে যুবায়ের (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ‘করমাল’ ব্যবহারে কোনো সমস্যা নেই। -হাদিস: ৪১৬৮

‘করমাল’ আরবি শব্দ। অর্থ হলো- রেশম বা পশমের সুতা দিয়ে তৈরি কেশগুচ্ছ যা মহিলারা চুলের সঙ্গে যুক্ত করে ব্যবহার করে।  

সুতরাং কেনো ধরনের নকল চুল ব্যবহার করা জায়েয নেই- এ কথা ব্যাপকভাবে বলা ঠিক নয়।

প্রকাশ থাকে যে, কৃত্রিম চুল লাগালে তখনই জায়েজ হবে যখন তা শুধুই সৌন্দর্যচর্চা পর্যন্ত সীমিত থাকবে। কিন্তু এ ধরনের চুল ব্যবহার করার দ্বারা যদি প্রতারণা উদ্দেশ্য থাকে তাহলে তা নাজায়েজ হবে। -রদ্দুল মুহতার: ৬/৩৭২; বজলুল মাজহুদ: ১৭/৫৮

ইসলাম বিভাগে লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৯২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭
এমএইউ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa