ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

মধ্যবর্তী নির্বাচনে ফল খারাপ, দোষ ট্রাম্পের!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০২২
মধ্যবর্তী নির্বাচনে ফল খারাপ, দোষ ট্রাম্পের!

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে সিনেটের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে ডেমোক্র্যাটিক পার্টি। তবে কংগ্রেসের নিম্ন কক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে পিছিয়ে আছে দলটি।

কিন্তু এতে খুশি নয় রিপাবলিকান পার্টি। সিনেটে কার্যত হেরে যাওয়ায় দলটির নেতারা তাই সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দোষারোপ করছেন। খবর বিবিসির।

খবরে বলা হয়েছে, সিনেটে ভোট ব্যর্থতার দায়ে ট্রাম্পের পাশাপাশি রিপাবলিকান সিনেট নেতা মিচ ম্যাককোনকেও দোষারোপ করা হচ্ছে। সমালোচনা চলছে দলের অভ্যন্তরে।

রোববার (১৩ নভেম্বর) সিনেটে পরাজয়ের জন্য ট্রাম্পকে দোষারোপ করেন ম্যারিল্যান্ডের রিপাবলিকান গভর্নর ল্যারি হোগান। তিনি বলেন, ট্রাম্প তিনবারের মতো আমাদের ডুবিয়েছেন। তিনি বলেছিলেন আমরা জয়ী হতে হতে ক্লান্ত হয়ে যাবো। কিন্তু আমরা হারতে হারতে ক্লান্ত।

মধ্যবর্তী নির্বাচনের ফল প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাইডেনের অবস্থানকে আরও শক্তিশালী করে তুলছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এরমধ্যে বাইডেন বলেছেন তিনি পরবর্তী নির্বাচনে লড়তে প্রস্তুত হচ্ছেন। যদিও সেটি নির্ভর করে তার স্বাস্থ্য ও পরিবারের সম্মতির ওপর।

হোয়াইট হাউজের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা অনিতা দুন বলেছেন, বাইডেন বিশ্বাস করেন ডেমোক্র্যাটের যে এজেন্ডা আছে তা বাস্তবায়নে তিনিই উপযুক্ত ব্যক্তি। পরবর্তী নির্বাচনে যদি ট্রাম্প প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন; ২০২০ সালের নির্বাচনের মতোই সাফল্য পাবেন বাইডেন।

এর আগে এক প্রতিবেদনে বিবিসি বলেছিল, সিনেট বা নিম্ন কক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে যদি রিপাবলিকানরা হেরে যায়, তাহলে ট্রাম্পের নির্বাচনী সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে যাবে। তার স্থলে অন্য কেউ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদে লড়তে পারেন। আদৌ কি হতে যাচ্ছে, সেটি সময়ের অপেক্ষা। তবে, আগামীকাল মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) ট্রাম্প আগামী নির্বাচনে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দেবেন।

ডেমোক্র্যাটরা হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের ভোটে পিছিয়ে আছে কথা সত্য। কিন্তু হাউজের ভোট গণনা যত এগিয়ে যাচ্ছে, রিপাবলিকানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার সম্ভাবনাও কমছে। চূড়ান্ত ফলাফলও আসেনি এখনও। এ অবস্থায় শঙ্কা বাড়ছে ট্রাম্প সমর্থিত দলটির।

হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের ভোটে রিপাবলিকানরা এখন পর্যন্ত ২১২টি আসন পেয়েছে। ডেমোক্র্যাটরা পেয়েছে ২০৩টি। দেশটির রাজনৈতিকরা মনে করেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দল ২১৮টি আসন অর্জনে সক্ষম হবে। হাউজের মোট আসন ৪৩৫টি।

সূত্র: বিবিসি

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa