ঢাকা, রবিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ আকাশচুম্বী শহর বানাচ্ছে সৌদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৪ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০২২
১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ আকাশচুম্বী শহর বানাচ্ছে সৌদি

সৌদি আরবের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলয় প্রদেশ তাবুকে ‘নিওম’ নামে নতুন এক শহর নির্মাণ করছে দেশটির সরকার। এক লাখ কোটি (১ ট্রিলিয়ন) ডলার ব্যয়ে শহরটি হবে ১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ।

আয়নাযুক্ত আকাশচুম্বী ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছে এ শহরে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, মিরর লাইন নামে পরিচিত এ শহরে ৪৮৮ মিটার (১৬০০ ফুট) উচ্চতার দুটি কাচের প্রতিফলিত ভবন নির্মাণ করা হবে। উপকূলীয় অঞ্চল, পাহাড় ও মরুভূমি জুড়ে ১২০ কিলোমিটার (৭৫ মাইল) এলাকায় সমান্তরালভাবে শহরটির নির্মাণ কাজ চলবে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, শহর নির্মাণে ব্যাপক পর্যালোচনার পর পরিকল্পনার ঘোষণা দেয় সৌদি সরকার।

পরিকল্পনার মধ্যে থাকছে যমজ ভবন, যা ওয়াকওয়ের মাধ্যমে সংযুক্ত হবে। এর নিচ দিয়ে চলবে উচ্চ-গতি সম্পন্ন একটি ট্রেন। ১ ট্রিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মিত এ শহরে ৫০ লাখ মানুষের বাসস্থান হবে বলে আশা করা হচ্ছে। মাত্র ২০ মিনিটে পুরো শহর ঘুরে দেখা যাবে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

২০২১ সালে প্রকাশিত নথি অনুসারে এ শহরে কোনো কিছুর কমতি থাকবে না। ১৬০০ ফুট পর্যন্ত লম্বা দুটি সমান্তরাল গগনচুম্বী ভবনের এ শহরে থাকবে ইয়ট মেরিনা ও স্টেডিয়াম। বিলাসবহুল অন্যান্য সুবিধাও থাকবে এ শহরে। ভবনের প্রস্তাবিত বাজেট ধরা হয়েছে ৫ হাজার কোটি ডলার।

শহরটি নির্মাণ করা হচ্ছে উত্তরদিকে লোহিত সাগর, আর পূর্বদিকে আকাবা উপসাগরের উপকূলকে মাথায় রেখে। মোহাম্মদ বিন সালমানের পরিকল্পনা অনুযায়ী শহরটি হবে প্রযুক্তিনির্ভর আধুনিক স্মার্ট সিটি। এটি দেশি-বিদেশি পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ হয়ে উঠবে বলেও তিনি মনে করেন।

নিওমের অভ্যন্তরে লাইন নামের একটি প্রযুক্তিভিত্তিক উপশহরও গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে সৌদি সরকারের। উপশহরটি হবে সম্পূর্ণরূপে পরিবেশ বান্ধব, মোটরগাড়ি ও জীবাশ্ম জ্বালানিমুক্ত।

২০১৭ সালে তাবুকে শূন্য-কার্বন স্মার্ট সিটি প্রকল্পের আওতায় নিওম শহর নির্মাণের ঘোষণা দেন সৌদি আরবের ডি ফ্যাক্টো শাসক মোহাম্মদ বিন সালমান। শহরের আকার হবে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস রাজ্যের ন্যায়।

শহরটি নির্মাণে সময়সীমা ২০৩০ সাল পর্যন্ত ভাবা হচ্ছে। তবে, সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শহরটির নির্মাণ শেষ হতে অন্তত ৫০ বছর সময় লাগবে।

মিরর লাইনের প্রাথমিক নকশাটি করেছে প্রিটজকার আর্কিটেকচার পুরস্কার বিজয়ী থম মেইন। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মরফোসিস আর্কিটেক্টস’র এ প্রতিষ্ঠাতা কমপক্ষে নয়টি কোম্পানি ও প্রকৌশলী সংস্থায় পরামর্শদাতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সূত্র : আল জাজিরা

বাংলাদেশ সময় : ১৫৫০ ঘণ্টা, ২৬ জুলাই, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।