ঢাকা, সোমবার, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

যুদ্ধে জীবন্ত কবর দেওয়ার পরও বেঁচে ফিরলেন তিনি, জানালেন অভিজ্ঞতা 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৩ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২২
যুদ্ধে জীবন্ত কবর দেওয়ার পরও বেঁচে ফিরলেন তিনি, জানালেন অভিজ্ঞতা  মাইকোলা কুলিচেঙ্কো

রাশিয়ার হামলার বিধ্বস্ত ইউক্রেন। সেখানকার এক ব্যক্তিকেই যুদ্ধে জীবন্ত কবর দিয়েছিলেন রুশ সেনারা।

তবে ভাগ্য ভালো হওয়ায় মতো বেঁচে ফিরেছেন তিনি। শুনিয়েছেন সেই ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা।  

মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএনকে মাইকোলা কুলিচেঙ্কো নামের ওই ইউক্রেনীয় জানান, রুশ সেনাদের ওপর বোমা হামলাকারীদের খুঁজতে গত ১৮ মার্চ চেরনিহিভ অঞ্চলে  তার বাড়িতে তল্লাশি চালায় রুশ সেনারা।  তাকে এবং তার ভাইবোনদের উঠোনে হাঁটু গেড়ে বসানো হয়েছিল। পরে  রুশ সেনারা তাদের বাড়িতে তল্লাশি শুরু করে।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, কুলিচেঙ্কোসহ তার দুই ভাইকে তিনদিন বেসমেন্টে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। চতুর্থ দিন কুলিচেঙ্কোকে রড দিয়ে পেটানো হয় এবং মুখের ভেতর বন্দুক রেখে গুলি করা হয়। অজ্ঞান না হওয়া পর্যন্ত তাদের ওপর অত্যাচার চালাতে থাকে রুশ সেনারা। এক পর্যায়ে তাদের জীবন্ত কবর দেওয়া হয়। তবে কুলিচেঙ্কো বেঁচে গেলেও তার দুই ভাই আর বেঁচে নেই।  

কুলিচেঙ্কো বলেন, এক ভাই আমার ওপরে শুয়ে থাকার কারণে আমি শ্বাস নিতে পারছিলাম না। কিন্তু আমি আমার বড় ভাইকে পাশে ঠেলে দিতে সক্ষম হয়েছি। পরে আমি সেখান থেকে বের হই।  

কুলিচেঙ্কো জানান,  তিনি সেখান থেকে ক্ষেতের মধ্য দিয়ে একটি বাড়িতে যান। একজন নারী তাকে সেখানে নিয়ে যান । সেখানে তাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়। এরপরই নিজের বাড়িতে চলে যান কুলিচেঙ্কো।  

বেঁচে ফেরার অনুভূতি জানাতে গিয়ে কুলিচেঙ্কো বলেন, আমার গল্প সবার শোনা দরকার।  শুধু ইউক্রেনে নয় সারা বিশ্বে এই ধরনের ঘটনা বিরল।  

সিএনএন জানায়, কুলিচেঙ্কো বেঁচে ফেরার পর তিনি তার ভাইদের মরদেহ উদ্ধার করে যথাযথভাবে কবর দিয়েছেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৩ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২২ 
ইআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa