ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ আষাঢ় ১৪২৮, ১৫ জুন ২০২১, ০৪ জিলকদ ১৪৪২

আন্তর্জাতিক

উন্নত চিকিৎসার জন্য জার্মানিতে নেওয়া হলো নাশিদকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১০২ ঘণ্টা, মে ১৪, ২০২১
উন্নত চিকিৎসার জন্য জার্মানিতে নেওয়া হলো নাশিদকে

হত্যাচেষ্টায় গুরুতর আহত মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জার্মানিতে নেওয়া হয়েছে।  

গত ৬ মে রাজধানী মালেতে বোমা বিস্ফোরণে আহত হওয়ার পর দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তার ফুসফুস, পেট ও লিভার থেকে ধাতব বস্তু বের করা হয়।

এরপর থেকেই নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর দিয়েছে।

ওই হামলায় জড়িত সন্দেহে তিন ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। তারা ইসলামি উগ্রবাদে যুক্ত বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে, কোনো গ্রুপ এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। গত ৬ মে রাজধানী মালেতে নিজের বাড়ি থেকে বেরিয়ে গাড়িতে ওঠার সময় মোহাম্মদ নাশিদকে লক্ষ্য করে মোটরসাইকেলে রাখা বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় এখনো তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ। হামলায় জড়িত অন্য সন্দেহভাজনদের গ্রেফতারে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। নাশিদের ওপর চালানো হামলায় এক ব্রিটিশ নাগরিক ছাড়াও আরও দুই ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়।

মালদ্বীপে প্রায়ই রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা যায়। ২০০৮ সালে বহু দলের অংশগ্রহণে মালদ্বীপে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মোহাম্মদ নাশিদ। ২০১২ সালে এক অভ্যুত্থানে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়। ২০১৫ সালে তাকে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে ১৩ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিন তাকে চিকিৎসার জন্য মুক্তি দিলে তিনি যুক্তরাজ্যে নির্বাসনে চলে যান। তবে ২০১৮ সালে দেশে ফিরে আসেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ০০৫২ ঘণ্টা, মে ১৪, ২০২১
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa