ঢাকা, রবিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৩ জুন ২০২১, ০২ জিলকদ ১৪৪২

আন্তর্জাতিক

ঈদের দিনেও গাজায় হামলা অব্যাহত, ইসরায়েলে নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৭ ঘণ্টা, মে ১৩, ২০২১
ঈদের দিনেও গাজায় হামলা অব্যাহত,  ইসরায়েলে নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষ

ঢাকা: পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিনেও গাজায় ইসরায়েলি বোমা হামলা অব্যাহত রয়েছে। ইসরায়েলের করা হামলায় এ পর্যন্ত ১৭ শিশুসহ ৮৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

আহত হয়েছেন আরও ৪৮০ জন।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানায়। খবর: আলজাজিরা।

খবরে বলা হয়, দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী গাজার আবাসিক বহুতল ভবনগুলোকে লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। এ পর্যন্ত কয়েকটি ভবন পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে, গাজার প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর পাল্টা ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইসরায়েল বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। গাজা থেকে ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে এ পর্যন্ত ৬ ইসরায়েলি প্রাণ হারিয়েছে বলে ইহুদিবাদী সূত্রগুলো স্বীকার করেছে। এছাড়া অনেকে হতাহত হয়েছে। ইসরায়েলে হতাহতের চেয়ে আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। তেল আবিব ও এর আশেপাশের এলাকায় ফিলিস্তিনি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানার পর ইসরাইলের সর্বত্রই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। লোকজন ভূগর্ভস্থ আশ্রয় কেন্দ্রে সময় কাটাচ্ছে।

ইসরায়েলি গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, দখলদারদের বিভিন্ন শহরে কেবল আগুন জ্বলছে। বহু ঘরবাড়ি ও গাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে। ইসরায়েলি দৈনিক হারেতজ জানায়, ফিলিস্তিনিদের ক্ষেপণাস্ত্র-বৃষ্টিতে ইহুদিবাদী নেতারা হতভম্ব হয়ে পড়েছেন।

অপরদিকে, ইসরায়েলের অভ্যন্তরের বিভিন্ন শহরে ইহুদিবাদীদের সঙ্গে সেখানে বসবাসকারী ফিলিস্তিনিদের ব্যাপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়েছে। এর ফলে ইসরায়েলি নেতারা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। ইসরায়েলি অভ্যন্তরে সংঘর্ষে এ পর্যন্ত বেশ কয়েকজন হতাহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। অভ্যন্তরীণ শহরে সংঘাত ছড়িয়ে পড়াকে ইসরায়েলের জন্য বড় বিপদ হিসেবে দেখা হচ্ছে।  

>>>এবার তেল আবিবের কেন্দ্রে আঘাত, মুহুর্মুহু রকেট হামলা হামাসের
>>>আল আকসায় মুসল্লিদের ঢল, আশঙ্কার মধ্যেই ঈদ উদযাপন

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩২ ঘণ্টা, মে ১৩, ২০২১
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa