ঢাকা, সোমবার, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ১৯ অক্টোবর ২০২০, ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আন্তর্জাতিক

স্থানীয়দের দাবি পূরণে জম্মুতে জেলা হাসপাতালের উন্নয়ন 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০
স্থানীয়দের দাবি পূরণে জম্মুতে জেলা হাসপাতালের উন্নয়ন  জম্মু ও কাশ্মীরে জেলা হাসপাতাল হান্দোয়ারা

জম্মু ও কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার সরকারি হাসপাতালটির উন্নয়ন কাজ পুরোদমে শুরু করেছে প্রশাসন। হাসপাতালটির চিকিৎসা সেবার সুযোগ-সুবিধা উন্নত করার দীর্ঘদিনের দাবি ছিল স্থানীয়দের।

জেলা হাসপাতাল হান্দোয়ারায় বিপুলসংখ্যক রোগীর ভিড় লেগেই থাকতো। আধুনিক চিকিৎসা সরঞ্জামাদি না থাকা এবং রোগীদের উপচেপড়া ভিড়ের কারণে অনেককেই চিকিৎসার জন্য শ্রীনগরে যেতে হতো।

হান্দোয়ারা এক সময় সন্ত্রাসবাদের কেন্দ্রস্থল হিসেবে বিবেচিত হতো। সেখানে সন্ত্রাসবাদ বিরোধী অভিযানে নিরাপত্তা বাহিনীর অনেক জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন। বর্তমানে সরকার ও স্থানীয় প্রশাসন হান্দোয়ারায় নানা ধরনের উন্নয়নমূলক কাজ হাতে নিয়েছে।  

কেন্দ্রীয় সরকারের ৪ কোটি রুপির অনুমোদনের পর হান্দোয়ারায় একটি ইনডোর স্টেডিয়ামের নির্মাণ কাজ চলছে। ৬৮ কোটি রুপির প্রকল্প অনুমোদিত হওয়ায় বর্তমানে হান্দোয়ারা হাসপাতালের উন্নয়নের কাজ পুরোদমে চলছে।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর সঙ্গে আলাপকালে স্থানীয়রা বলেন, জেলা হাসপাতাল হান্দোয়ারার উন্নয়ন হলে রোগীরা এই হাসপাতালে সব ধরনের চিকিত্সা সেবা পাবেন।

আলতাফ নামে এক স্থানীয় বলেন, হান্দোয়ারায় হাসপাতাল থাকলেও স্থানীয়রা চিকিত্সার জন্য শ্রীনগরে যেতেন। কারণ, এই হাসপাতালের চিকিৎসাসেবার সুযোগ-সুবিধার অভাব ছিল। এখন সরকার ও প্রশাসন হাসপাতালটির উন্নয়নের জন্য কাজ করছে। আমি তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। এই হাসপাতালেই যেন সব ধরনের চিকিৎসাসেবা পাওয়া যায় আমি সরকারকে সেই অনুরোধ করছি।

বিলাল আহমদ নামে আরেক স্থানীয় বলেন, আমি সরকারকে অনুরোধ করব যত দ্রুত সম্ভব হাসপাতালটির আপগ্রেডেশন সম্পন্ন করার জন্য। এতে এখানকার রোগীদের খুব উপকার হবে। বিভিন্ন গ্রাম থেকে লোকেরা এখানে চিকিত্সার জন্য আসেন। হাসপাতালটির উন্নয়ন হলে লোকেরা সব ধরনের চিকিত্সা সুবিধা পাবেন এই হাসপাতালে।

হান্দোয়ারা ব্যবসায়ী ফেডারেশনের সভাপতি আজাজ আহমদ বলেন, সঠিক অর্থায়নে হাসপাতালটি আধুনিক প্রযুক্তির পাশাপাশি উন্নত প্রযুক্তির ল্যাব পাবে এবং হাসপাতালের জনবলও বাড়ানো হবে।

তিনি আরও বলেন, এই হাসপাতালটি নির্মাণের জন্য আমি সরকারের কাছে সত্যই কৃতজ্ঞ। এটি হান্দোয়ারার বৃহত্তম হাসপাতাল। আমরা এই হাসপাতালে সমস্ত সুযোগ-সুবিধা চাই। আমরা আশা করি সঠিক অর্থায়নের পরে উন্নয়ন কাজ শিগগিরই সম্পন্ন হবে।

হাসপাতালটির ডেপুটি সুপারিন্টেন্ডেন্ট ডা. আজিজ আহমদ বলেন, জেলা হাসপাতালগুলিতে যেন সব ধরনের রোগের চিকিৎসা করা যায় এমন লক্ষ্য নিয়ে সরকার সেগুলোকে উন্নয়নের কাজ করছে।

তিনি বলেন, আমরা জনগণের সমস্যা সমাধানের জন্যই এখানে আছি। লোকজনকে আমাদের অবহিত করলে আমরা তাদের সমস্যা সমাধান করব।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০
এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa