bangla news

উহানে করোনায় ৩ দিন আক্রান্ত হননি কেউই, সরছে চেকপয়েন্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-২১ ৮:৫৭:৪৪ পিএম
উহানে এক স্বাস্থ্যকর্মীকে স্যালুট করছেন চীনা নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা

উহানে এক স্বাস্থ্যকর্মীকে স্যালুট করছেন চীনা নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা

চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে (কোভিড-১৯) তৃতীয় দিনের মতো আক্রান্ত হননি নতুন কেউ । এতে মহামারি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য শহরের বিভিন্ন প্রান্তে স্থাপিত চেকপয়েন্টগুলো সরিয়ে নিতে শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ।

শনিবার (২১ মার্চ) হংকং ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিযুক্ত কর্তৃপক্ষ জানায়, নতুন করে উহানে কেউ আক্রান্ত না হওয়ায় জানুয়ারিতে লকডাউনের পর মহামারি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শহরের বিভিন্ন স্থানে স্থাপিত চেক পয়েন্টগুলো সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। তবে শহরের বাইরের রাস্তা খুলে দেওয়ার বিষয়ে কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

এদিকে কোভিড-১৯ এ পরপর তিনদিন কেউ আক্রান্ত না হওয়ায় ও শহরের চেকপয়েন্ট সরিয়ে নেওয়া আতশবাজির মাধ্যমে উদযাপন করেছেন শহরের বাসিন্দারা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চেক পয়েন্ট সরিয়ে নেওয়ার ও আতশবাজির বিভিন্ন আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র এরমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে।

তবে এখনোই করোনা ভাইরাস সংক্রমণে অবস্থার উন্নতির বিষয়টি মানতে নারাজ শহরের অনেক বাসিন্দা।

শহরের বাসিন্দা ওয়েন জি জানান, নতুন আক্রান্ত না হওয়ার বিষয়টি তিনি বিশ্বাস করেন না।

আলোকচিত্র শিল্পী এ নারী বলেন, ‘আমি মনে করি, এখনো ঘরে থাকাই নিরাপদ হবে।’।

নভেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরেই প্রথম প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় কোভিড-১৯। ভাইরাস সংক্রমণে এক উহান শহরেই আক্রান্ত হয়েছে ৫০ হাজারের বেশি বাসিন্দা। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৫০৪ জনের।

বর্তমানে বিশ্বের ১৮৬টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯। ভাইরাস সংক্রমণে ২ লাখ ৮৬ হাজার ৬৯৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মুত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৮৮৯ জনের।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৭ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২০
এবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চীন করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-21 20:57:44