bangla news

করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগ অস্বীকার রাশিয়ার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২৩ ১১:৩৮:২২ এএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নতুন করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাশিয়া।

রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

মার্কিন কর্মকর্তাদের অভিযোগ, রাশিয়ার সঙ্গে সংযোগ রয়েছে এমন অ্যাকাউন্ট থেকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্র এ ভাইরাস ছড়িয়েছে। কর্মকর্তারা জানান, টুইটার, ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামের হাজার হাজার প্রোফাইল থেকে এ গুজব ছড়ানো হচ্ছে।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন কর্মকর্তাদের এ অভিযোগ ‘মিথ্যে’ বলে নাকচ করে দিয়েছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেন, ইচ্ছে করেই এ মিথ্যে গল্প ছড়ানো হচ্ছে।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত দু’ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন, যাদের বড় অংশ চীনের নাগরিক। এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রায় ৭৭ হাজার মানুষ শনাক্ত করা হয়েছে। চীনের হুবেই প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পড়া এ ভাইরাসের কারণে কোভিড-১৯ নামে শ্বাসতন্ত্রের রোগ হচ্ছে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত উপ-পররাষ্ট্র মন্ত্রী ফিলিপ রিকার অভিযোগ করেন, করোনা ভাইরাসের উৎস সম্পর্কে রাশিয়া ভুল তথ্যের বীজ বুনতে চেষ্টা করছে। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া একটি ষড়যন্ত্র তত্ত্বে বলা হয়, চীনের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক যুদ্ধের অংশ হিসেবে এ ভাইরাস ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফিলিপ রিকার বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে এসব মিথ্যে তথ্য ছড়ানোর মাধ্যমে বৈশ্বিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি থেকে মনোযোগ সরিয়ে মানুষের নিরাপত্তা ঝুঁকির মুখে ফেলছে রাশিয়া। এসব গুজবে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পেছনে মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসকেও দায়ী করা হয়েছে।

জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে গুজব ছড়ানোর এ বিষয়টি নজরে আসে যুক্তরাষ্ট্রের। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গ্লোবাল এনগেজমেন্ট সেন্টারের প্রধান লিয়া গ্যাব্রিয়েল বলেন, এ ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাই, গুজব ছড়ানোর জন্য তাদের একটি নিবিড় ব্যবস্থা চালু রয়েছে, যার মধ্যে রাষ্ট্রীয় টিভি, প্রক্সি ওয়েবসাইট এবং সামাজিক মাধ্যমে হাজার হাজার ভুয়া অ্যাকাউন্ট দিয়ে এ তথ্যটি প্রচার করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০
এফএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-23 11:38:22