bangla news

করোনা থেকে মুক্তি মিললো প্রায় শতবর্ষী নারীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৪ ৮:৩৯:২৭ পিএম
হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরছেন লু

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরছেন লু

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনদিন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৬ বছর বয়সী চীনা নাগরিক লু। বলা হচ্ছে, প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা লু-ই হচ্ছেন এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তি।

চীনে শনাক্ত হওয়া ভাইরাসটিতে যেখানে অনেক যুবক মারা যাচ্ছেন, সেখানে প্রায় শতবর্ষী এই নারীর ‘ফিরে’ আসার বিষয়টি সবার মধ্যে আশা জাগাচ্ছে। এর আগে গত সপ্তাহে ৯২ বছর বয়সী এক নারী ভাইরাসটির আক্রমণ থেকে রেহাই পান।

নভেল করোনা ভাইরাস নিউমোনিয়া, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) যার আনুষ্ঠানিক নাম দিয়েছে ‘কোভিড-১৯’- এতে আক্রান্ত হয়ে শেষ পর্যন্ত চীনেই প্রায় ১৪শ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর বিশ্বজুড়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে ৬৪ হাজার মানুষ। 

হাসপাতালের দেওয়া এক বিবৃতির বরাতে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, জিঝাং প্রদেশের নিংবো শহরের ওই নারী অসুস্থ হয়ে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তাকে হংজুর জিঝাং বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে টানা তিনদিন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে থাকার পর বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) তিনি ছাড়পত্র পান।

হাসপাতালের সংক্রামক রোগ বিভাগের পরিচালক ড. শেং জিফেং বলেন, লু তার কন্যার মাধ্যমে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আর তার কন্যা ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন তার এক বন্ধুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার মাধ্যমে। এখন তার কন্যারও চিকিৎসা চলছে।

এ ধরনের রোগে বয়স্ক রোগীদের চিকিৎসায় জটিলতার বিষয়ে উল্লেখ করে হাসপাতালের কমিউনিস্ট পার্টির সম্পাদক লিয়াং তিংবো বলেছেন, তারা এ সময় বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন জটিলতায় ভোগেন। তাদের উচ্চরক্তচাপ, হৃদযন্ত্রের সমস্যা থাকে। এসবের মধ্যে তাদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া চিকিৎসকদের জন্য খুবই কষ্টসাধ্য। তারপরও লুয়ের মতো বয়স্ক রোগীরা সুস্থ হয়ে উঠবেন এটাই সবার প্রত্যাশা। 

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০
জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-14 20:39:27