bangla news

মার্কিন সেনাদের ইরাক ছাড়ার দাবিতে বাগদাদে পদযাত্রা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২৪ ৯:৫৮:২১ পিএম
মার্কিন নেনাদের ইরাক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার দাবিতে বাগদাদে পদযাত্রা।

মার্কিন নেনাদের ইরাক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার দাবিতে বাগদাদে পদযাত্রা।

মার্কিন সেনাদের ইরাক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার দাবিতে রাজধানী বাগদাদে পদযাত্রায় অন্তত ২৫ লাখ ইরাকি নাগরিক অংশগ্রহণ করেছেন।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) শিয়া নেতা মুকতাদা আল-সদরের ইরাক থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহারের দাবিতে পদযাত্রার আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে এর আয়োজন করা হয়।

ইরাকি সেন্টার ফর স্টাডিজের পরিচালক সৈয়দ সাদিক আল-হাশেমি জানান, শুক্রবারের পদযাত্রায় অন্তত ২৫ লাখ ইরাকি অংশগ্রহণ করেছেন।

শুক্রবার সকাল থেকে ইরাকের জাতীয় পতাকা হাতে বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ ও শিশুর অংশগ্রহণে বাগদাদের পূর্বের আল-জাদরিয়া মহল্লা থেকে এ পদযাত্রার শুরু হয়।

পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারীরা ‘আমেরিকা, আর না’, ‘দখলদার বেরিয়ে যাও’ সহ বিভিন্ন স্লোগানের মাধ্যমে মার্কিন সেনাবাহিনীকে ইরাক থেকে বের হয়ে যাওয়ার দাবি জানায়।

পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারীরা জানান, ২০০৩ থেকে মার্কিন সেনাবাহিনীর ইরাক দখলের মধ্য দিয়ে তারা সম্মানজনক সাধারণ জীবনযাপনের অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। মার্কিন দখলদারিত্ব তাদের কাছ থেকে সবকিছু কেড়ে নিয়েছে। মার্কিন দখলদারিত্ব থেকে নিজেদের মুক্ত করতে তাই তারা এ পদযাত্রায় অংশ নিয়েছেন।

বাগদাদের এ পদযাত্রায় রাজধানী ছাড়াও ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশগুলো থেকে ইরাকিরা অংশগ্রহণ করেন। এ উপলক্ষে বাগদাদে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

৩ জানুয়ারি বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও ইরাকি সশস্ত্র দল হাশাদের উপঅধিনায়ক আবু মাহদি আল মুহানদিস নিহত হওয়ার দু'দিন পর ৫ জানুয়ারি ইরাকের সংসদ বিপুল ভোটে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহারের প্রস্তাব পাস করে। কিন্তু মার্কিন সরকার ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে না বলে জানিয়ে আসছে।

২০০৩ সালে ইরাকে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে মারণাস্ত্র থাকার অভিযোগে ইরাক আক্রমণ করে মার্কিন সামরিক বাহিনী। বর্তমানে ইরাকের বিভিন্ন সামরিক ঘাঁটিতে অন্তত পাঁচ হাজারের মত মার্কিন সেনা অবস্থান করছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০২০
এবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   যুক্তরাষ্ট্র ইরাক ইরান
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-24 21:58:21