bangla news

‘ফুয়েল ট্যাংকারিং’ পর্যালোচনা করবে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১১ ৯:৫০:৩০ পিএম
 ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজ। ছবি: সংগৃহীত

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজ। ছবি: সংগৃহীত

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ (বিএ) তাদের উড়োজাহাজগুলোর অতিরিক্ত খরচ বাঁচানোর জন্য বেশি পরিমাণে জ্বালানি নেওয়ার বিষয়টি পর্যালোচনা করে দেখছে।

সোমবার (১১ নভেম্বর) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র বিশেষ প্যানারোমা অনুষ্ঠানের প্রতিবেদনে এয়ারওয়েজটির বেশি জ্বালানি নিয়ে পরিবেশে অতিরিক্ত কার্বন ডাই অক্সাইড নিঃসরণের বিষয়টি উঠে আসলে এ পর্যালোচনার কথা জানায় সংস্থাটি।

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ পরিচালনাকারী সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স গ্রুপের (আইএজি) প্রধান নির্বাহী উইলি ওয়ালস স্বীকার করেছেন, ফুয়েল ট্যাংকারিং নামে পরিচিত উড়োজাহাজে বেশি জ্বালানি নেওয়ার এ অনুশীলন সংস্থাটির মধ্যে রয়েছে।

ওয়ালস জানান, অর্থ সাশ্রয়ের জন্য তারা উড়োজাহাজে বেশি পরিমাণে জ্বালানি নিয়ে নেন। বিভিন্ন বিমানবন্দরে জ্বালানির বিভিন্ন দাম থাকায় তারা একবারে অতিরিক্তি জ্বালানি নিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করেন।

‘অর্থনৈতিক সাশ্রয়ের চিন্তা আমাদেরকে ট্যাংকারিং করতে প্রভাবিত করছে, কিন্তু এটি হয়তো ভুল পদক্ষেপ’, বলেন উইলি ওয়ালস।

গবেষকরা জানান, এ অনুশীলনের কারণে প্রতি বছর অতিরিক্ত ১৮ হাজার টন কার্বন নিঃসরণ করে এয়ারওয়েজটি। যা একটি বড় শহরের নিঃসরিত কার্বনের সমপরিমাণ।

সমালোচকরা বলছেন, ফুয়েল ট্যাংকারিংয়ের অনুশীলন উড়োজাহাজ সংস্থাগুলোর পরিবেশের প্রতি চাপ কমানোর অঙ্গীকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে।

আইএজি ঘোষণা দিয়েছে, ২০৫০ সালের মধ্যে তারা পরিবেশে কার্বন নিঃসরণ শূন্যতে নিয়ে আসবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১১, ২০১৯
এবি/এইচএডি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-11 21:50:30