ঢাকা, সোমবার, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১২ জিলহজ ১৪৪১

আন্তর্জাতিক

জলবায়ু চুক্তিকে অন্যায্য বোঝা বলে সরে গেলেন ট্রাম্প!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-০৫ ১০:০৩:৫৯ পিএম
জলবায়ু চুক্তিকে অন্যায্য বোঝা বলে সরে গেলেন ট্রাম্প! মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: নেতিবাচক জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ উদ্বেগ প্রকাশ করলেও যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের আর্থিক লাভের হিসাব গুনছে বলে মত প্রকাশ করেছেন বিশ্লেষকরা। কেননা, সোমবার (০৪ নভেম্বর) ১৮৭টি দেশ জলবায়ু চুক্তিতে একমত হলেও ওয়াশিংটন সই করেনি।

মঙ্গলবার (০৫ নভেম্বর) জাতিসংঘকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দেওয়ার মধ্য দিয়ে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেয় হোয়াইট হাউস। ২০২০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্তভাবে কার্যকর করা হবে বলে জানানো হয়েছে ওই চিঠিতে।

মার্কিন সরকার বলছে, চুক্তিটি আমেরিকানদের ওপর একটি ‘অন্যায্য অর্থনৈতিক বোঝা’ চাপানোর মতো।

এর আগে ২০১৭ সালে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধিকে উপহাস করে এটিকে ‘অযৌক্তিক চুক্তি’ আখ্যা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ট্রাম্প প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোসহ বিশ্বনেতারা।

প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে বলা হয়েছে, ২০৫০ সালের মধ্যে পৃথিবীতে কার্বনের ব্যবহার কমিয়ে তাপমাত্রা দুই ডিগ্রিতে নামিয়ে আনার চেষ্টা করা হবে। জলবায়ু নিয়ন্ত্রণে উন্নত দেশগুলো ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবে স্বল্পোন্নত ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে। পাঁচ বছর পরপর প্রতিটি দেশের জলবায়ু প্রতিবেদন তৈরি করা হবে।

বিশ্লেষকদের মতে, বিশ্বের ১৫ শতাংশ কার্বনই নিঃসরিত হয় যুক্তরাষ্ট্র থেকে। যদিও এ তথ্য মানতে নারাজ ট্রাম্প।

আরও পড়ুন>> দিন দিন বাড়ছে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা, বড় ঝুঁকিতে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪২ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৫, ২০১৯
কেএসডি/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa