bangla news

ইইউ দেখে আসতে না আসতেই ৫ শ্রমিক হত্যা কাশ্মীরে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২৯ ১০:১৪:২৯ পিএম
কাশ্মীরের নিরাপত্তা পরিস্থিতি, ছবি: সংগৃহীত

কাশ্মীরের নিরাপত্তা পরিস্থিতি, ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরে পাঁচ শ্রমিককে হত্যা করেছেন সন্ত্রাসীরা। তবে নিহতরা কাশ্মীরি নন বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। এছাড়া সন্ত্রাসী হামলাটিতে বেশ কয়েকজন আহতও হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) রাতে এনডিটিভি জানিয়েছে, অঞ্চলটির কুলগ্রামে নন-কাশ্মীরি পাঁচ শ্রমিকে হত্যা করেছেন সন্ত্রাসীরা। গত কয়েকদিন ধরে উপত্যকাটিতে শ্রমিকদের ওপর হত্যা কার্যক্রম চালানো হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেছে নির্ভরযোগ্য সংবাদমাধ্যমটি।

স্থানীয় পুলিশ বলছে, কুলগ্রাম জেলায় সন্ত্রাসী হামলায় পাঁচজন নিহত হয়েছেন। একইসঙ্গে আহতও আছেন কয়েকজন।

জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের মহাপরিচালক দিলবাগ সিং সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কতগুলো মরদেহ উদ্ধার করেছে তারা। এছাড়া বিষয়টির বিস্তারিত খতিয়ে দেখছি আমরা।

এদিকে, কাশ্মীরের চলমান পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে মঙ্গলবার সেখানে গিয়েছিল ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ২৮ সদস্যের প্রতিনিধি দল। তারা দেখে আসতে না আসতেই ঘটে গেলে আরও একটি মর্মান্তিক ঘটনা। যদিও তারাও ঘুরে এমন মন্তব্যই করেছেন কাশ্মীর নিয়ে।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য এবং ব্রিটিশ এমপি ক্রিস ডেভিস কাশ্মীরের পরিস্থিতি দেখে বলেছেন, এখানে অবাধে ঘুরতে এবং স্থানীদের সঙ্গে কথা বলতে দেওয়া হয়নি আমাকে। আসলে ভারত সরকার কী লুকাতে চাইছে? আমি মোদী সরকারের জনসংযোগের কাজ করতে ইচ্ছুক ছিলাম না। সব ঠিক আছে, এরকম ভাব দেখাতেও ইচ্ছুক না। এটা স্পষ্ট যে, কাশ্মীরে গণতান্ত্রিক নীতি ধ্বংস করা হয়েছে। সারাবিশ্বের এটা দেখা প্রয়োজন।

গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয় ভারত সরকার। এরপর কাশ্মীরের পরিস্থিতি সামাল দিতে এ পর্যন্ত ৪০০ রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে আটক করে রাখা হয়েছে। সেইসঙ্গে বন্ধ করা হয় ইন্টারনেট সেবা, যা এখনো স্বাভাবিক হয়নি। কিছুদিন আগে মোবাইল ফোন সেবা চালু করা হলেও অনেকেই এটা ব্যবহার করতে পারছেন না বলে অভিযোগ করছে।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১৯
টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ভারত কাশ্মীর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-29 22:14:29