bangla news

গম চোর এরদোগান এখন নেমেছেন ভূমি দখলে:  আসাদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ৬:২০:১০ পিএম
সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বাশার আল-আসাদ। ছবি- সংগৃহীত

সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বাশার আল-আসাদ। ছবি- সংগৃহীত

সম্প্রতি সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুর্কি সেনা অভিযানের ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ বলেছেন, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যিপ এরদোগান একজন চোর। এর আগে তিনি কলকারখানা, গম ও তেল চুরি করেছেন, আর আজ নেমেছেন অন্যের ভূমি দখল করতে। 

সিরিয়ার উত্তরাংশে ইদলিব অঞ্চলের আল-হেবেইত শহরে সিরীয়-আরব সেনাদের সঙ্গে সাক্ষাতকালে বাশার আল আসাদ এ কথা বলেন।  মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়। 

এরদোগান ও মার্কিনমিত্র কুর্দিবিদ্রোহী গোষ্ঠীসহ অন্য বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমালোচনা করে আসাদ বলেন, যখন আমরা বাইরের কারো দ্বারা আক্রান্ত হবো, বা কেউ আমাদের ভূমি দখলের চেষ্টা চালাবে তখন আমাদের দায়িত্ব হলো একতার মধ্য দিয়ে তা প্রতিহত করা। কিন্তু, দুর্ভাগ্যবশত কিছু সিরীয়, তা করেননি। আমরা তাদের বলেছিলাম, বাইরের কারো ওপর নির্ভরশীল না হয়ে, দেশ ও তার সেনাবাহিনীর ওপর নির্ভরশীল হতে, কিন্তু তারা শোনেনি। তারা মার্কিনিদের মিত্র বানিয়েছে। এখন আমরা দেখছি, তুরস্ক তাদের হটিয়ে বিশাল ভূমি দখলে নিয়েছে। অথচ এগুলো কুর্দি গোষ্ঠীর হাতে থাকার কথা ছিল। 

দেশের বিরুদ্ধে যে কোনো শক্তিকে মোকাবেলায় তার সরকার প্রস্তুত বলে জানান আসাদ। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বাইরের আগ্রাসন ঠেকাতে আগ্রহী যে কোনো রাজনৈতিক বা সামরিক গোষ্ঠীকেও সরকার সহায়তা দিতে প্রস্তুত বলে জানান তিনি।

প্রেসিডেন্ট বলেন, যখন তুর্কি আগ্রাসনে উত্তরাঞ্চল আক্রান্ত হলো তখনই আমরা বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামরিক গোষ্ঠীর সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। এবং বলেছি যে, আমরা তাদের সহায়তায় এগিয়ে আসতে প্রস্তুত। এটি কোনো রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নয়। বরং সংবিধান ও জাতির প্রতি আমাদের দায়িত্ব। প্রতিরোধে এগিয়ে না এলে আমরা কোনো মাতৃভূমির  দাবি করতে পারি না।  

চলতি মাসের ৯ অক্টোবর সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে সেনা অভিযান শুরু করে তুরস্ক। পরে মার্কিন মধ্যস্থতায় ১৮ থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত সেনা অভিযান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এই শর্তে যে, এর মধ্যে কুর্দি যোদ্ধারা নিরাপদে ওই অঞ্চল থেকে সরে যাবে। এ শর্ত পালিত না হলে পুনরায় সেনা অভিযান পরিচালনার হুমকি দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যিপ এরদোগান।  অবশ্য এরই মাঝে কুর্দিরা ওই এলাকা থেকে সরে যেতে শুরু করেছে।  

তুর্কি ওই অভিযানে শতাধিক নিহত ও প্রায় ৩ লাখের মতো মানুষ বাস্তুহারা হয় বলে খবরে প্রকাশ। 

তুরস্ক বলছে, কুর্দি মিলিশিয়ামুক্ত করে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলকে ‘নিরাপদ ভূমি’ ঘোষণা করতে চায় তারা। এ অঞ্চলটিকে তুরস্কে অবস্থানরত ৩৬ লাখ সিরীয় শরণার্থীর জন্য বাসযোগ্য করে তোলার পরিকল্পনা দেশটির সেনাবাহিনীর। এর বাইরে সিরিয়া বা অন্য কারো ভূমি দখলের কোনো পরিকল্পনা তুরস্কের নেই বলে জানিয়েছেন এরদোগান।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০১৯
এইচজে 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-22 18:20:10