ঢাকা, সোমবার, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

হিজবুল্লাহর হুমকি ‘আমলে নিলেন না’ নেতানিয়াহু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-১৮ ১২:৪৪:১০ পিএম
 টিভিতে বক্তব্য রাখছেন হিজবুল্লাহ নেতা হাসান নাসরাল্লাহ। ছবি: সংগৃহীত 

টিভিতে বক্তব্য রাখছেন হিজবুল্লাহ নেতা হাসান নাসরাল্লাহ। ছবি: সংগৃহীত 

লেবাননের শিয়া নেতা ও সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর প্রধান হাসান নাসরাল্লাহ সম্প্রতি ইসরায়েলি সেনারা পুনরায় লেবাননে প্রবেশ করলে ব্যাপক নিধনের শিকার হবে বলে হুমকি দিয়েছেন। এর প্রতিক্রিয়ায় ওই হুমকিকে এক কথায় উড়িয়ে দিয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

শনিবার (১৭ আগস্ট) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হোয়াটস অ্যাপে দেওয়া এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী হিজবুল্লাহর হুমকি আমলে নেওয়ার কিছু নেই বলে উল্লেখ করেন।
  
হিজবুল্লাহ নেতা নাসরাল্লাহ খুব কম জনসমক্ষে আসেন। ওই ব্যাপারটিকে পরিহাস করে বিবৃতিতে নেতানিয়াহু লেখেন, ‘আমরা নাসরাল্লাহর হুমকির ব্যাপারে মোটেও আগ্রহী নই। নাসরাল্লাহই বরং ভালো জানেন, তিনি কেন (কার ভয়ে)  বাঙ্কারে (লুকিয়ে) থেকে এসব হুমকি প্রচার করেন।’

২০০৬ সালে লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে ইসরায়েলি সেনা ও হিজবুল্লাহর মধ্যে মাসব্যাপী এক যুদ্ধ হয়। এতে ১২০০ লেবানিজ এবং সেনাসহ ১৬০ জনেরও বেশি ইসরায়েলি নিহত হন। ওই যুদ্ধের ত্রয়োদশ বার্ষিকীতে শুক্রবার (১৬ আগস্ট) ইসরায়েলকে হুমকি দিয়ে টেলিভিশনে এক বক্তব্য দেন নাসরাল্লাহ।

বক্তব্যে হিজবুল্লাহ প্রধান বলেন, ২০০৬ সালের যুদ্ধ আমাদের গ্রাম ও শহরগুলোতে সামরিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরির ক্ষেত্রে হিজবুল্লাহকে সাহায্য করেছে। আবারও যদিও ইসরায়েলি সেনারা লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে অনুপ্রবেশ করে, তাহলে গণমাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করে তাদের নিধনযজ্ঞ দেখানো হবে।
 
২০১৪ সালে লেবাননের সংবাদপত্র আল-আখবারে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে নাসরাল্লাহ জানান যে, তিনি কোনো বাঙ্কারে লুকিয়ে থাকেন না। ২০০৬ সালের ওই যুদ্ধের পর থেকে নিরাপত্তার কারণে তাকে নিয়মিত নিজের অবস্থান বদলাতে হয়। 

বাংলাদেশ সময়: ১২৪২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০১৯  
এইচজে/এইচএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-18 12:44:10