ঢাকা, সোমবার, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯
bangla news

থাইল্যান্ডে ৫ বছরের সামরিক শাসনের অবসান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১৫ ৮:০৯:৪৪ পিএম
সদ্য পদত্যাগ করা সামরিক সরকার প্রধান প্রায়ুথ চান ওচা, ছবি: সংগৃহীত

সদ্য পদত্যাগ করা সামরিক সরকার প্রধান প্রায়ুথ চান ওচা, ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: প্রায় পাঁচ বছর পরিচালনের পর অবশেষে থাইল্যান্ডে সামরিক শাসনের অবসান ঘটেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান ওচা তার সামরিক সরকার প্রধান পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর মাধ্যমে থাইল্যান্ডে এবার গণতান্ত্রিক শাসন প্রতিষ্ঠা হতে চলেছে।

সোমবার (১৫ জুলাই) তিনি এ পদ থেকে অফিসিয়ালি পদত্যাগ করেন। পরে তিনি একটি টেলিভিশনে বলেন, দেশে সামরিক শাসনের অবসান ঘটলো। তবে সংসদে সামরিক বাহিনীর পক্ষের সমর্থনে তিনি দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ঠিকই থাকছেন।

জাতির উদ্দেশে টেলিভিশনে প্রায়ুথ চান ওচা বলেন, এই সামরিক সরকার অনেক এলাকায় সাফল্য পেয়েছে। এই সময়ে থাইল্যান্ডের সমুদ্রে অবৈধভাবে মাছ ধরা এবং মানবপাচার রোধ করা হয়েছে। এছাড়া গত বছর বন্যার কারণে ১২ খুদে ফুটবলার এবং তাদের কোচ একটি গুহায় আটকে গেলে, তাদের উদ্ধারে এই সরকার ব্যাপক সাফল্যের পরিচয় দেয়।

২০১৪ সালে একটি অভ্যুত্থানে থাই ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন সাবেক এই সেনাপ্রধান। এরপর ছয় মাস রাস্তায় বিক্ষোভ ও সহিংসতা হওয়ার পর আদেশ বিবেচনা করার প্রয়োজন দেখা দেয়। কিন্তু একটি নির্বাচনের পর সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে উঠে।

থাইল্যান্ড বর্তমানে সাংবিধানিক রাজতন্ত্রের সঙ্গে একটি পূর্ণাঙ্গ গণতান্ত্রিক দেশ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশটির পার্লামেন্টের সদস্যরা নির্বাচিত।

এখন থেকে বিশেষ ক্ষমতার ব্যবহার ছাড়া দেশের সব সমস্যার সমাধান সাধারণভাবে গণতান্ত্রিক নিয়মে করা হবে বলেও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান ওচা।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৮ ঘণ্টা, জুলাই ১৫, ২০১৯
টিএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-15 20:09:44