bangla news

ইস্তাম্বুলের পুনঃনির্বাচনে ফের বিরোধী প্রার্থীর জয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-২৪ ১:০৬:২১ পিএম
জয়ী হওয়া বিরোধীদলীয় প্রার্থী ইকরাম ইমামোগলু। ছবি: বাংলানিউজ

জয়ী হওয়া বিরোধীদলীয় প্রার্থী ইকরাম ইমামোগলু। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: তুরস্কের অন্যতম প্রধান শহর ইস্তাম্বুলে পুনরায় মেয়র নির্বাচনে ফের জয়ী হয়েছেন বিরোধীদলীয় প্রার্থী ইকরাম ইমামোগলু। 

সোমবার (২৪ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, রোববার (২৩ জুন) তুরস্কের অন্যতম প্রধান শহর ইস্তাম্বুলে পুনরায় মেয়র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ানের দল একে পার্টির (একেপি) প্রার্থী বিনালি ইয়েলদ্রিমকে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন বিরোধী দল রিপাবলিকান পিপলস পার্টির (সিএইচপি) প্রার্থী ইকরাম ইমামোগলু।

এর আগে ৩১ মার্চ ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সে নির্বাচনেও বিরোধীদলীয় প্রার্থী ইমামোগলুই আশ্চর্যজনকভাবে বিপুল ব্যবধানে জয়ী হয়েছিলেন। তবে সে সময় নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি বলে দাবি করেছিল ক্ষমতাসীন দল একেপি। এরই প্রেক্ষিতে সে নির্বাচন বাতিল করে রোববার পুনরায় ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

তবে পুনঃনির্বাচনেও কোনো লাভ হয়নি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ানের দলের।

সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ৯৯ শতাংশ ভোটই গণনা করা হয়েছে। এর মধ্যে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী পেয়েছেন ৪৫ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে জয় লাভ করা বিরোধীদলীয় প্রার্থী পেয়েছেন ৫৪ শতাংশ ভোট।

এক টুইটার বার্তায় ইতোমধ্যে জয়ী প্রার্থীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান।

এর আগে যে দল ইস্তাম্বুলের নির্বাচনে জয়ী হবে, সে দলই পুরো তুরস্ক জয় করবে বলে মন্তব্য করেছিলেন এরদোয়ান।

জয়লাভ করা বিরোধীদলীয় প্রার্থী ইমামোগলু বলেন, নির্বাচনের এ ফলাফলের মাধ্যমে এ শহরসহ পুরো দেশে নতুন এক অধ্যয়ের সূচনা হলো। এ অধ্যয়ে ন্যায় বিচার, সমতা এবং ভালোবাসা থাকবে।

পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের সঙ্গে সমন্বয় রেখেই কাজ করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৬ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০১৯
এসএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-24 13:06:21