ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৭ জুন ২০১৯
bangla news

খাবারের লাইনে দাঁড়িয়ে আত্মঘাতী, হামলাকারী শ্রীলঙ্কান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২২ ১১:৪৯:৩৩ এএম
 নিহত ৩৫ বিদেশিদের বেশিরভাগই হোটেলে ছিলেন। ছবি: সংগৃহীত

নিহত ৩৫ বিদেশিদের বেশিরভাগই হোটেলে ছিলেন। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: শ্রীলঙ্কার সিনামোন গ্র্যান্ড হোটেলের বিস্ফোরণটি ছিল আত্মঘাতী। হামলাকারী হোটেলে সকালের বুফে নাস্তার জন্য সবার সঙ্গে লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন। খাবার নেওয়ার আগমুহূর্তে তিনি পিঠে বাঁধা বোমার বিস্ফোরণ ঘটান।

রোববার (২১ এপ্রিল) খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ইস্টার সানডে উপলক্ষে সিনামোন গ্র্যান্ড হোটেলে জড়ো হয়েছিলেন অসংখ্য পর্যটক। এরমধ্যেই বোমা হামলা চালানো হয় হোটেলটিতে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে হোটেলের এক ম্যানেজার জানান, হামলাকারী ঘটনার আগের রাতে মোহাম্মাদ আজম নামে রেজিস্ট্রেশন করেন। সকালে খাবারের প্লেট হাতে লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। 

তিনি বলেন, ইস্টার সানডের ছুটিতে হোটেলের রেস্টুরেন্টে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি ভিড় ছিল। সেখানে অনেকেই সপরিবারে এসেছিলেন। সকাল সাড়ে আটটার দিকে হামলাকারী লাইনের শেষ প্রান্তে উপস্থিত হন এবং খাবার দেওয়ার সময় বিস্ফোরণ ঘটান।     

‘আমাদের এক ম্যানেজার যিনি অতিথিদের অভ্যর্থনা জানাচ্ছিলেন, তিনিও ঘটনাস্থলেই মারা যান।’

ওই ম্যানেজার বলেন, বোমা হামলাকারীও সেখানে প্রাণ হারান। তার শরীরের টুকরোগুলো ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল, পরে পুলিশ সেগুলো নিয়ে গেছে।

তিনি বলেন, এ হামলায় ২০ জনেরও বেশি গুরুতর আহত হন। আমরা তাদের ন্যাশনাল হাসপাতালে পাঠিয়েছি।

হোটেলের অন্য কর্মকর্তারা জানান, হামলাকারী শ্রীলঙ্কান নাগরিক ছিলেন। শহরে তিনি ব্যবসার কাজে এসেছিলেন বলে জানিয়েছিলেন। হোটেলের রেজিস্টারে তিনি যে ঠিকানা দিয়েছিলেন তা ভুয়া।

রোববার একই সময় সাংগ্রিলা ও কিংসবারি নামে আরো দু’টি বিলাসবহুল হোটেলে বোমা হামলা চালানো হয়। এছাড়া ইস্টার সানডের প্রার্থনাকালে তিনটি গির্জাতেও হামলা করা হয়। 

কর্তৃপক্ষ বলছে, বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৩৫ বিদেশি নাগরিকের মধ্যে বেশিরভাগই হোটেলগুলোতে ছিলেন।

তবে, কারা এ হামলা করেছে তা এখনো জানাতে পারেনি দায়িত্বশীলরা।

রোববার (২১ এপ্রিল) সকালে শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ২৯০ জন নিহত এবং আহত হয়েছেন প্রায় ৫০০ জন।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৮ ঘণ্টা, ২২ এপ্রিল, ২০১৯
একে/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   হামলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-22 11:49:33