ঢাকা, সোমবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

ভেনেজুয়েলায় ত্রাণ পাঠানো লোক দেখানো!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯
ভেনেজুয়েলায় ত্রাণ পাঠানো লোক দেখানো! ত্রাণ যাতে না ঢুকতে পারে, সেজন্য ভেনেজুয়েলা প্রবেশমুখী তিয়েনদিতাস সেতু বন্ধ করে রাখা হয়েছে, ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: ভেনেজুয়েলায় আন্তর্জাতিক মানবিক সহায়তার লক্ষ্য লোক দেখানো দাবি করে এই ত্রাণ দেশে ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছেন দেশটির বামপন্থী আলোচিত নেতারা।

সম্প্রতি তারা বলেছেন, ভেনেজুয়েলার অসুস্থ, ক্ষুধার্ত এবং হতাশাগ্রস্ত মানুষের কাছে আন্তর্জাতিক সহায়তা পৌঁছতে দেওয়া হবে না।

দেশটির সামজতান্ত্রিক দলের সংসদ সদস্য গেরারদো বারেরা এবং উইলিয়াম পারাদা দাবি করেছেন, দেশে কলম্বিয়া সীমান্ত দিয়ে কয়েক টন খাদ্য এবং ওষুধ সরবরাহ করার চেষ্টা করা হচ্ছে, এটা প্রচারের অপচেষ্টা ছাড়া কিছুই নয়।

এছাড়া এটিকে হস্তক্ষেপের একটি প্রক্রিয়াও বলা যেতে পারে।

তাদের মধ্যে এক রাজনীতিবিদ বলেন, প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর ভেনেজুয়েলান ইউনাইটেড সোস্যালিস্ট পার্টির (পিএসইউভি) স্থানীয় প্রতিনিধিরা চলমান রাজনৈতি সংকটকে ‘সমাজতন্ত্র ও পুঁজিবাদের মধ্যে যুদ্ধ’ বলে বর্ণনা করেছেন।

এদিকে, ভেনেজুয়েলায় আন্তর্জাতিক মানবিক ত্রাণ সহায়তা আনা হবে বলে জানিয়েছেন নিজেকে দেশের ‘অন্তবর্তী প্রেসিডেন্ট’ দাবি করা বিরোধী নেতা হুয়ান গুইদো।

আরও পড়ুন>> যুক্তরাষ্ট্রের ত্রাণ ভেনেজুয়েলায় ঢুকবে: গুইদো

তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলায় ২৩ ফেব্রুয়ারি মানবিক ত্রাণ ঢুকবে। তা না হলে আমাদের তিন লাখ নাগরিক রয়েছেন, যারা না খেয়ে মারা যাবেন। সেইসঙ্গে প্রায় দুই মিলিয়ন লোক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়বেন।

এর আগে বামপন্থী প্রেসিডেন্ট মাদুরো বলেছিলেন, ভেনেজুয়েলায় যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা পাঠানো হস্তক্ষেপের একটি উপায়। এই ত্রাণ আমরা সমর্থন করবো না।

মাদুরোকে উৎখাত করার জন্য গত মাসে গুইদো আন্দোলনের ডাক দেন। সেসময় তিনি নিজেকে ‘অন্তবর্তী প্রেসিডেন্ট’ দাবি করেন। এটাকে আবার যুক্তরাষ্ট্রসহ প্রায় ৫০টি দেশ স্বীকৃতিও দিয়েছে।

মাদুরো সরকারবিরোধী উত্তাল পরিস্থিতিতে ভেনেজুয়েলায় ত্রাণ পাঠানোর চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র। ইতোমধ্যে ত্রাণবাহী যান পৌঁছেছে কলম্বিয়া-ভেনেজুয়েলা সীমান্তে। কিন্তু ভেনেজুয়েলায় প্রবেশমুখী তিয়েনদিতাস সেতু কার্গো দিয়ে বন্ধ করে রেখেছে সেনাবাহিনী। যুক্তরাষ্ট্রের ত্রাণ মাদুরো প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে তারা এ যান ভেনেজুয়েলায় ঢুকতে দিচ্ছে না।

মাদুরোর নেতৃত্বাধীন সময়ে তেল সম্পদে সমৃদ্ধ দেশ ভেনেজুয়েলার অর্থনীতি হ্রাস পেয়েছে। যার ফলে হাইপারইনফ্ল্যাশন, মন্দা এবং খাদ্য ও ওষুধের মতো মৌলিক দ্রব্যেরও অভাব দেখা দেয় দেশটিতে।

এদিকে, রাশিয়া এবং চীন সমর্থিত মাদুরোকে দ্রুত প্রেসিডেন্ট নির্বাচন দেওয়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র এ জন্য আল্টিমেটামও দিয়েছিল। দেশটিতে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক সংকট, দুর্নীতি এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে মাদুরো সরকারের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছে হাজার হাজার মানুষ।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯
টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।