ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

ত্রিপুরায় ৩১ রোহিঙ্গার বিষয়ে নয়াদিল্লির বিবৃতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯
ত্রিপুরায় ৩১ রোহিঙ্গার বিষয়ে নয়াদিল্লির বিবৃতি

বাংলাদেশ সীমান্তের শূন্যরেখায় কয়েকদিন অবস্থানের পর ত্রিপুরায় ফিরিয়ে নেওয়া মিয়ানমারের ৩১ রোহিঙ্গার বিষয়ে বিবৃতি দিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ওই বিবৃতিতে বলেন, পারস্পরিক পরামর্শের ভিত্তিতে বিষয়টির সুরাহার জন্য প্রতিবেশীদের সঙ্গে কাজ করে যাবে ভারত।

এর আগে কয়েকদিন ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কাজিয়াতলী এলাকায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের ২০২৯ পিলারের কাছে ৩১ নারী, পুরুষ ও শিশু রোহিঙ্গা অবস্থান করছিল।

মঙ্গলবার সকালে তাদের ফেরত নিয়ে যাওয়া হয় ত্রিপুরায়।

বিষয়টি নিয়ে সংবাদমাধ্যমে নানা খবর ছড়ানোর প্রেক্ষিতে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই মুখপাত্র বিবৃতিতে বলেন, ‘সীমান্তে থাকা রাখাইনের ৩১ জনের বিষয়টি সরকারের নজরে আছে। তাদের কাগজপত্র এবং দাবি যাচাই করা হচ্ছে। পাশাপাশি ভারতীয় সীমান্তরক্ষায় নিয়োজিত বাহিনীর তরফ থেকে প্রয়োজনীয় আশ্রয়, খাদ্য ও অন্যান্য সরঞ্জাম দেওয়া হচ্ছে। কিছু লোকের মাধ্যমে বাংলাদেশের দিকে কথিত এ ধরনের তৎপরতার (অনুপ্রবেশ) বিষয়ে মিডিয়ার খবরও নজরে এসেছে সরকারের। ’

এ ধরনের তৎপরতার সঙ্গে সরকারের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই জানিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আরও বলেন, ‘পারস্পরিক পরামর্শের ভিত্তিতে এই বিষয়টির সুরাহার জন্য প্রতিবেশীদের সঙ্গে কাজ করে যাবে ভারত। ’

রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযানের মুখে সেখান থেকে প্রাণভয়ে পালিয়ে বেশিরভাগ রোহিঙ্গা বাংলাদেশেই আশ্রয় নিয়েছে। কিছু রোহিঙ্গা বিভিন্ন সময়ে গেছে ভারতসহ নানা দেশেও। এই রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে সেখানে ঘর করে দেওয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারের পাশে থেকেই কাজ করছে ভারত।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa