ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

তাইওয়ানকে ঘায়েল করতে সামরিক শক্তি বাড়ালো চীন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯
তাইওয়ানকে ঘায়েল করতে সামরিক শক্তি বাড়ালো চীন চীনা অস্ত্রবাহী গাড়ি, ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: আঞ্চলিক শক্তিকে ঘায়েল করতে চীন গত কয়েক বছরে উচ্চাকাঙ্ক্ষী সামরিক শক্তি সংস্কারের একটি সিরিজ তৈরি এবং যুদ্ধক্ষেত্রে সক্ষমতা বাড়াতে দেশটি নতুন প্রযুক্তির লক্ষ্য অর্জন করেছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থার একটি নতুন প্রতিবেদন বলছে।

মঙ্গলবার (১৫ জানুয়ারি) প্রকাশিত এ প্রতিবেদন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, তাদের আঞ্চলিক দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে কয়েকটি জায়গায়, যেমন তাইওয়ানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে চায় চীন। আর সেজন্য চীনারা গত কয়েক বছর ধরে সামরিক শক্তির সংস্কার করছেন।

‘চীনের সামরিক শক্তি’ শিরোনামের এই মার্কিন প্রতিবেদনটি বলছে, বেইজিংয়ের দীর্ঘদিনের আগ্রহ তাইওয়ানকে তাদের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে পুনরেকত্রীকরণে বাধ্য করা। সেইসঙ্গে তাইওয়ানের স্বাধীনতা ঘোষণার যেকোনো প্রচেষ্টাকে চীন বাধা দেবে। আর সেটাই চীনের সামরিক শক্তি আধুনিক করার প্রাথমিক লক্ষ্য।

চীনের আশঙ্কা তাইওয়ানে হস্তক্ষেপ করা হলে এটা মোকাবিলা করতে বিদেশি বাহিনী যোগ দিতে পারে। তাই চীন বিদেশি আঞ্চলিক শক্তিকে রোধ এবং তাইওয়ানের শক্তি বৃদ্ধিতে বাধা হিসেবে কাজ করছে সুকৌশলে।

এদিকে, চীনা সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন প্রকাশ থেকে এমনটি বোঝা যাচ্ছে যে- তাইওয়ান নিয়ে চীনের সামরিক বাহিনীর পরিকল্পনায় যুক্তরাষ্ট্র হস্তক্ষেপ করবে না বা নৈতিক সমর্থন দেবে না।

সরকারিভাবে চীনা প্রজাতান্ত্রিক অঞ্চল তাইওয়ান। চীনের মূল ভূখণ্ডের দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলে অবস্থিত পূর্ব এশিয়ার এ দ্বীপ অঞ্চলটি। আর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর দ্বীপপুঞ্জগুলো চীনা প্রজাতন্ত্রের অধীনে চলে আসে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯
টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa