[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৬ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

জ্যাকব জুমার বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট বৃহস্পতিবার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-১৪ ৭:৫৬:৩৭ এএম
কালই হতে পারে জ্যাকব জুমার ক্ষমার শেষ দিন।

কালই হতে পারে জ্যাকব জুমার ক্ষমার শেষ দিন।

কিছুতেই পদত্যাগে রাজি করা যায়নি তাকে। তাই ক্ষমতা থেকে পার্লামেন্টে অনাস্থা ভোটের মাধ্যমে  প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমাকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করার সিদ্ধান্ত নিল তার নিজের দল আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেস (এএনসি)। বৃহস্পতিবার আনা হবে এই অনাস্থা।

 

এএনসির বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যমগুলো এখবর দিয়েছে বুধবার।

এএনসির ট্রেজারার জেনারেল পল মাশাতিলে বুধবার সাংবাদিকদের বলেন, প্রেসিডেন্ট জুমাকে ক্ষমতা থেকে হটানোর জন্য আমরা অনাস্থা ভোট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এরই মধ্যে আমরা চিফ হুইপকে পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাব আনার প্রক্রিয়া শুরু করতে বলেছি।

জুমাকে সরিয়ে দেবার পর সিরিল রামাফোসা হবেন দক্ষিণ আফ্রিকার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট একথা জানিয়ে পল মাশাতিলে বলেন, ক্ষমতা থেকে মানে মানে সরে দাঁড়াবার জন্য বুধবার পর্যন্ত জ্যাকব জুমার  শেষ সুযোগ। বুধবারের মধ্যে সরে না দাঁড়ালে আমরা তাকে অনাস্থার মাধ্যমে সরিয়ে দেব।

শত চেষ্টা করলেও জ্যাকব জুমা অনাস্থা ভোটে টিকতে পারবেন না। কেননা পার্লামেন্টে এএনসি বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ।  

উল্লেখ্য, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি ও অর্থপাচারের একাধিক অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত হবার পর আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসের (এএনসি) সভাপতির পদ হারিয়েছেন। কিন্তু দলের নেতাদের বারংবার অনুরোধ সত্ত্বেও প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাড়াচ্ছেন না জ্যাকব জুমা।

২০০৯ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকেই একের পর এক দুর্নীতি ও নানাবিধ কেলেঙ্কারিতে জড়িত এই নেতাকে এবার তার পূর্বসূরী থাবো এমবেকির মতেই ক্ষমতা থেকে লজ্জাজনকভাবে বিদায় নিতে হবে।

বলাবাহুল্য, জ্যাকব জুমা ছিলেন থাবো এমবেকির ডেপুটি।পরে তিনি এমবেকির স্থলাভিষিক্ত হন। দুর্নীতি-অনিয়ম আদালতে প্রমাণ হবার পরও প্রেসিডেন্টের পদ না ছেড়ে আগের মতোই সমান তালে দুর্নীতি চালিয়ে যেতে থাকেন। এভাবে তিনি দলের ভাবমূর্তির জন্য বড় হুমকিতে পরিণত হন। এ অবস্থায় দল তাকে আর ছাড় দিতে রাজি নয়। সামনের নির্বাচনকে সামনে রেখে এবার এএনসি চাইছে জুমাকে সরিয়ে ক্লিন ইমেজ ফিরিয়ে আনতে।
বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

জেএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache