ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

দুর্নীতি মামলায় দোষী লালুপ্রসাদ, সাজা ৩ জানুয়ারি 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১২২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৭
দুর্নীতি মামলায় দোষী লালুপ্রসাদ, সাজা ৩ জানুয়ারি  লালুপ্রসাদ যাদব কি অন্ধকার দেখছেন?

পশুখাদ্য ক্রয় সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় দোষীসাব্যস্ত হয়েছেন বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) প্রধান লালুপ্রসাদ যাদব। 

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) ঝাড়খণ্ডের রাজধানী রাঁচিতে কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরোর (সিবিআই) বিশেষ আদালতের বিচারক শিবপাল সিং দোষীসাব্যস্ত করেন লালুকে। আগামী ৩ জানুয়ারি এই মামলার সাজা ঘোষণার জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত।

এই মামলায় লালুসহ ২৩ অভিযুক্তের মধ্যে সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জগন্নাথ মিশ্রসহ মাত্র ছয়জনকে বেকসুর মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, এই মামলার রায় নিয়ে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপির বিরুদ্ধে সরব লালুর দল আরজেডি। দলটির পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে বলা হয়েছে, বিরোধীদের কণ্ঠরোধে কেন্দ্রীয় সরকার ব্যবহার করছে সিবিআইকে। এছাড়া, এ রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করা হবে।

একসময় লালুর দলের সঙ্গে বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের জনতা দল-ইউনাইটেডের (জেডিইউ) দহরম-মহরম থাকলেও এ বছরের মাঝামাঝিতে রাজ্য সরকারের নেতৃত্ব নিয়ে তাদের জোটে ফাটল ধরে। এই ফাটলের পরিণতি ঠেকে নীতিশের বিজেপি শিবিরে যোগদানে এবং মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে অব্যাহতিতে। পরে লালুর জোটকে হারিয়ে বিজেপির সমর্থনে ফের মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেন নীতিশ।

এরপর আরজেডি নেতা লালুর বিরুদ্ধে প্রায় দু’দশকের পুরনো পশুখাদ্য মামলাটির রায়কে বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখছিলেন বিশ্লেষকরা। শেষ তক দোষী সাব্যস্তই হলেন নীতিশের একসময়ের প্রধান পরামর্শক লালু।  

মামলাটির বিষয়ে সংবাদমাধ্যম বলছে, ১৯৯৪-৯৬ সালের দিকে লালু মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালে পশুখাদ্য কেনার ভুয়া বিল দেখিয়ে সরকারি ‘দেওঘর ট্রেজারি’ থেকে ৮৪ কোটি ৫০ লাখ রুপি তুলে নেওয়া হয়।  

ঠিক একই কায়দায় ‘চাইবাসা ট্রেজারি’ থেকে ৩৭ কোটি ৫০ লাখ রুপি তুলে নেওয়ার দায়ে ২০১৩ সালে লালুর পাঁচ বছরের জেল ও ২৫ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়। সে বছরই সুপ্রিম কোর্ট তাকে ওই মামলায় জামিন দিলেও বাতিল হয়ে যায় লালুর সংসদ সদস্য পদ। একইসঙ্গে জারি হয় নির্বাচনে তার অংশগ্রহণের ওপর ছয় বছরের নিষেধাজ্ঞা।

রাজ্যের রাজনীতি বিশ্লেষকরা আগামী ৩ জানুয়ারির সাজা ঘোষণার দিকে চেয়ে আছেন। কারণ, এখানে কোনো শাস্তি বিহারের একসময়ের ‘অঘোষিত রাজা’ ও তার পরিবারকে ফেলে দেবে আরও বেকায়দায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৭
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa