bangla news

সুচির আবেদনে সাড়া দিলেন মিয়ানমারের সর্বোচ্চ আদালত

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-২১ ৩:৫৩:১৫ এএম

অং সান সুচির গৃহবন্দী দশা থেকে মুক্তির চূড়ান্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে শুনানির জন্য সম্মতি দিয়েছেন মিয়ানমারের সর্বোচ্চ আদালত। বৃহস্পতিবার তার আইনজীবী এ তথ্য জানান।

ইয়াঙ্গুন: অং সান সুচির গৃহবন্দী দশা থেকে মুক্তির চূড়ান্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে শুনানির জন্য সম্মতি দিয়েছেন মিয়ানমারের সর্বোচ্চ আদালত। বৃহস্পতিবার তার আইনজীবী এ তথ্য জানান।

আইনজীবী নিয়ান উইন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, আগামী ১৩ নভেম্বর অং সান সুচি মুক্তি পাবেন। তবে আমরা তাকে নিরপরাধ প্রমাণের জন্য আইনী লড়াই চালিয়ে যাব।’

তিনি জানান, উচ্চ আদালত বুধবার রাতে একটি ঘোষণা দিয়েছেন যে, সুচির পক্ষে বিশেষ আবেদনের শুনানি চলবে। সুচি গত ১৫ বছরের অধিকাংশ সময়ই গৃহবন্দী রয়েছেন।

নিয়ান উইন জানান, বিশেষ আবেদনবিষয়ক বেঞ্চের কাছে আইনজীবীরা তাদের যুক্তি তুলে ধরবেন। বেশ কয়েকজন বিচারকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ প্রশাসনিক রাজধানী নায়পিতাও-এ এই বিচার কাজ চালাবেন। তবে কবে শুরু হবে এ বিষয়ে উল্লেখ করা হয়নি।

গৃহবন্দী থাকা অবস্থায় ২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের একজন নাগরিককে বাড়িতে আশ্রয় দেওয়ার ঘটনায় সুচির বিরুদ্ধে আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে মামলা হয়। ওই মামলা নিস্কৃতি পেতে এটাই সু চির সর্বশেষ আইনী সুযোগ।

সুচির আইনজীবীরা জানান, তাকে গৃহবন্দী রাখা সম্পূর্ণ বেআইনী। কারণ সুচিকে ১৯৭৪-এর সংবিধান অনুযায়ী তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অথচ ১৯৮৮ সালে জান্তা সরকার মতায় আসার পর ওই সংবিধান বিলোপ করে দেয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-10-21 03:53:15