ঢাকা, রবিবার, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২১ শাবান ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

ইসরায়েলি অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২৩
ইসরায়েলি অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলায় জড়িত উগ্রবাদী ইহুদী অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর। এটি ইসরায়েলিদের বিরুদ্ধে তাদের ‘সবচেয়ে বড় মিত্র’ বলে পরিচিত যুক্তরাষ্ট্রের বিরল পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন এ ভিসা নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দেন। তিনি জানান, অধিকৃত পশ্চিম তীরে শান্তি, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বিনষ্টকারী ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীদের ‍বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

একদিন আগেই পররাষ্ট্র দপ্তর হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিল, ফিলিস্তিনিদের তাদের ভূমি থেকে উচ্ছেদ করে বসতি স্থাপনকারী আক্রমণকারীদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের সরকার পর্যাপ্ত পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে। তারও আগে থেকে বারবার অবৈধ বসতি স্থাপনকারী চরমপন্থি ইসরায়েলিদের থামানোর কথা বলছিল মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর।

গত ৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ইসরায়েলে হামলা চালানোর পর থেকে পশ্চিম তীরে নিরীহ ফিলিস্তিনিদের ওপর সহিংসতা চালিয়ে আসছে ইসরায়েলি অবৈধ বসতি স্থাপনকারীরা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ ওয়াশিংটনের শীর্ষ কর্মকর্তারা বারবার এ ধরনের সহিংসতা বন্ধের কথা বলে আসছিলেন ইসরায়েলি নেতাদের।

কিন্তু কোনো ফলাফল না পাওয়ায় ভিসা নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দিয়ে অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেন, আজ থেকে পররাষ্ট্র দপ্তর পশ্চিম তীরে শান্তি, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বিনষ্টে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ভিসা নিষেধাজ্ঞা নীতি বাস্তবায়ন করবে। সহিংসতা অথবা এ ধরনের কর্মকাণ্ড করে যারা বেসামরিক নাগরিকদের প্রয়োজনীয় সেবা ও মৌলিক প্রয়োজনীয়তা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তারা এই নীতির আওতায় পড়বে।

এসময় সহিংসতায় জড়িত উগ্রপন্থি অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের বিচারের আওতায় আনতে ইসরায়েলি সরকারকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে বলেও উল্লেখ করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

গত ৭ অক্টোবর হামাসের চালানো হামলায় ইসরায়েলে এ পর্যন্ত এক হাজার ২০০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ওই হামলাকালে ২৪০ জনকে জিম্মি করে সশস্ত্র গোষ্ঠীটি।

এরপর ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী গাজা উপত্যকায় নির্বিচারে বেসামরিক স্থাপনায় হামলা চালাতে থাকে। তাদের 
বিমান ও স্থল হামলায় এ পর্যন্ত ১৬ হাজার ২০০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। বাস্তুহারা হয়েছেন ১৫ লাখেরও বেশি।

৭ অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত অবৈধ ইহুদী বসতি স্থাপনকারীরা পশ্চিম তীরে হামলা চালিয়ে ৯ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে। উগ্রবাদী ইহুদিরা ফিলিস্তিনিদের গ্রাম ও খামারে পর্যন্ত হামলা চালিয়ে লুটপাট করছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৬, ২০২৩
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।