ঢাকা, রবিবার, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২১ শাবান ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

যুক্তরাজ্যে কেয়ার ভিসায় ডিপেন্ডেন্ট নয়, বছরে ৩৮৭০০ পাউন্ড বেতন ছাড়া নেওয়া যাবে না স্পাউস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০২৩
যুক্তরাজ্যে কেয়ার ভিসায় ডিপেন্ডেন্ট নয়, বছরে ৩৮৭০০ পাউন্ড বেতন ছাড়া নেওয়া যাবে না স্পাউস

বিদেশি কর্মীদের ভিসা ও বেতনের ওপর নতুন নিয়ম চালু করলো যুক্তরাজ্য। যেসব বিদেশি দেশটিতে বসবাস করেন তারা এখন থেকে কেয়ার ভিসায় কোনো ডিপেন্ডেন্ট নিয়ে যেতে পারবেন না।

আর বাৎসরিক ৩৮ হাজার ৭০০ পাউন্ড বেতন না হলে নেওয়া যাবে না স্পাউসও।

কাতারের সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে। খবরে বলা হয়েছে, কাজের ভিসার জন্য বিদেশি কর্মীদের প্রয়োজনীয় ন্যূনতম বেতন বাড়ানোর পরিকল্পনাসহ যুক্তরাজ্যে নেট মাইগ্রেশন কমাতে ব্রিটিশ সরকার একটি প্যাকেজ ঘোষণা করেছে।

মূলত, যুক্তরাজ্যে অভিবাসীর হার কমাতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। কেননা, ২০২২ সালে দেশটিতে নেট মাইগ্রেশন রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। যে কারণে, প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের ওপর চাপ বাড়ছে।

খবরে বলা হয়, ২০২২ সালে নেট মাইগ্রেশনের রেকর্ড স্তরে পৌঁছানোর পর তা রোধ করার প্রয়োজন বোধ করে ব্রিটিশ সরকার। এ জন্য দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পাঁচ দফা পরিকল্পনা নির্ধারণ করে। এসব পরিকল্পনার মধ্যে কেয়ার ভিসায় ডিপেন্ডেন্ট আনতে মানা ও স্পাউস বা স্কিলড ওয়ার্কার গেলে বাৎসরিক বেতন ৩৮ হাজার ৭০০ পাউন্ডের সিদ্ধান্তটি অন্যতম।

গত বছর যুক্তরাজ্যে ৭ লাখ ৪৫ হাজার অভিবাসী প্রবেশ করেছে। সম্প্রতি এক বক্তব্যে এ অভিবাসনের মাত্রা খুব বেশি এবং তা টেকসই স্তরে নামিয়ে আনা প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক।

সোমবার যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস ক্লিভারলি জানান, তাদের সরকার বিদেশি দক্ষ কর্মীদের জন্য ন্যূনতম বেতন ৩৮ হাজার ৭০০ পাউন্ড (৪৮ হাজার ৮০০ ডলার) করতে যাচ্ছে। বর্তমানে দেশটিতে বিদেশি দক্ষ কর্মীদের বেতন ২৬ হাজার ২০০ পাউন্ড বা ৩৩ হাজার ডলার। এসব কর্মী কেয়ার ভিসায় তাদের পরিবার নিয়ে আসতে পারবেন কি না, সে ব্যাপারে কঠোর নিয়ম হতে যাচ্ছে।

জেমস বলেন, এই দেশে অভিবাসন অনেক বেশি এবং এটি কমাতে হবে। আমরা আগের যেকোনো সরকারের চেয়ে আরও শক্তিশালী পদক্ষেপ নিচ্ছি। প্যাকেজটি আগামী বসন্ত থেকে চালু হয়ে যাবে।

তার বক্তব্য অনুসারে আগে বিদেশি দক্ষ শ্রমিক আসতে বাৎসরিক ন্যূনতম বেতন ছিল ২৬ হাজার পাউন্ড, ফ্যামিলি ভিসার ক্ষেত্রে স্পাউস আনতে ১৮ হাজার ৬০০ পাউন্ড, এখন উভয় ক্ষেত্রেই ৩৮ হাজার ৭০০ পাউন্ড নির্ধারণ করা হয়েছে।

এ ছাড়া কেয়ার ভিসা স্পন্সর করার জন্য প্রতিষ্ঠানকে বাধ্যতামূলকভাবে কেয়ার কোয়ালিটি কমিশনে নিবন্ধিত হতে হবে। তাছাড়া শর্টেজ অকুপেশন লিস্টেরও সংস্কার করা হবে। স্টুডেন্ট ভিসায় ডিপেন্ডেন্ট নিয়ে আসার নিয়মকে আরও কঠিন করা হবে। পাশাপাশি মাইগ্রেশন অ্যাডভাইজরি কমিটি কর্তৃক স্নাতক ভিসা রুটের সম্পূর্ণ পর্যালোচনা করা হবে।

সরকার অভিবাসী কমানোর সিদ্ধান্ত নিলেও পদেক্ষপগুলো ব্যবসায়ী বা প্রতিষ্ঠান মালিকদের সঙ্গে নতুন বিরোধ সৃষ্টি হবে বলে মনে করা হচ্ছে। তা ছাড়া টোরি সরকারে মারাত্মক ক্ষোভের জন্ম নেয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০২৩
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।