ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

কয়েক দফা দেউলিয়া হতে পারে পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ১, ২০২৩
কয়েক দফা দেউলিয়া হতে পারে পাকিস্তান

পাকিস্তানে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে, কয়েক দফা দেউলিয়া হতে পারে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি। পাকিস্তান ব্যুরো অব স্ট্যাটিস্টিকস (পিবিএস) জানিয়েছে গত ৬৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি দেখা দিয়েছে দেশটিতে।

শনিবার (১ এপ্রিল) এ তথ্য দেওয়ার পাশাপাশি সংস্থাটি বলেছে, বৈদেশিক মুদ্রার সংকটের কারণে নিত্যপণ্যের দাম এতটাই বেড়েছে, তরতর করে বাড়ছে মুদ্রাস্ফীতি। এ পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে কার্যত ব্যর্থ হচ্ছে পাকিস্তানের ক্ষমতাসীন জোট সরকার।

এর আগে গতকাল শুক্রবার (৩১ মার্চ) পাকিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে মুদ্রাস্ফীতি আরও বাড়বে। রুপির অবমূল্যায়নের আগে নেওয়া নীতিগত সিদ্ধান্ত, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নীতিগত হার ও জ্বালানির দাম বৃদ্ধি এ পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে।

পিবিএস প্রকাশিত তথ্য অনুসারে চলতি বছর মার্চে পাকিস্তানের ভোক্তা মূল্য সূচক (সিপিআই) হয়েছে ৩৫ দশমিক ৩৭ শতাংশ। দেশটির বিনিয়োগ সংস্থা আরিফ হাবিব করপোরেশন জানিয়েছে, ১৯৬৫ সালের জুলাই মাসের পর সিপিআই সর্বোচ্চ বেড়েছে। ২০২২ সালে এ সময়ে মুদ্রাস্ফীতি ১২ দশমিক ৭২ শতাংশ রেকর্ড করা হয়েছিল।

বর্তমান পরিস্থিতিতে মুদ্রাস্ফীতি বেশি গ্রামাঞ্চলে। শহরে মুদ্রাস্ফীতির হার ৩২ দশমিক ৯৭; গ্রামে ৩৮ দশমিক ৮৮ শতাংশ।

গত সপ্তাহে সংবেদনশীল মূল্য সূচকে (এসপিআই) পরিমাপ করা স্বল্পমেয়াদী মূল্যস্ফীতির হার রেকর্ড ৪৬ দশমিক ৬৫ শতাংশে পৌঁছায়। মাসিক মুদ্রাস্ফীতি ফেব্রুয়ারিতে ৩১ দশমিক ৬ শতাংশে ছিল।

ডন জানিয়েছে, ২০২২ সালের জুন থেকে বার্ষিক মূল্যস্ফীতি ২০ শতাংশের উপরে চলে যাওয়ায় গত কয়েক মাস ধরে দাম দ্রুত বেড়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক উপদেষ্টা শাখা বলছে, রোজায় প্রচুর কেনাকাটা চাহিদা ও সরবরাহের ব্যবধানের কারণ হতে পারে। এতে নিত্যপণ্যের দাম আরও বেড়ে যাবে।

সূত্র: জিও টিভি

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১, ২০২৩
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।