ঢাকা, রবিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ শাবান ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

সমস্ত ইউক্রেন পুড়ে যাবে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
সমস্ত ইউক্রেন পুড়ে যাবে

সাবেক রুশ প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ ইউক্রেনে পশ্চিমাদের সহায়তা ভালো চোখে দেখছেন না। ন্যাটো ও পশ্চিমা দেশগুলোর অস্ত্র সরবরাহের পরিপ্রেক্ষিতে জেলেনস্কি শাসিত দেশটিকে নিয়ে বড় হুমকি দিয়েছেন তিনি।

বলেছেন, পুরো ইউক্রেনে পুড়ে যাবে।

শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সাংবাদিক নাদানা ফ্রিড্রিসনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ হুমকি দেন।

দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন, ইউক্রেনে পশ্চিমাদের আরও অস্ত্র পাঠানোর পরিণতি হবে ভয়াবহ। রাশিয়া প্রতিশোধমূলক হামলা শুরু করতে পারে। এতে কিয়েভের শাসনের অধীনে থাকা সমস্ত ইউক্রেন পুড়ে যাবে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগন জানিয়েছে, ইউক্রেন ভূখণ্ডে রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ২০০ কোটির বেশি মার্কিন ডলার সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এর আওতায় রয়েছে কিছু রকেট। যা ইউক্রেনের স্ট্রাইক রেঞ্জকে দ্বিগুণ করবে। এ তথ্যের পরিপ্রেক্ষিতেই ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ মেদভেদেভ হুমকি দেন।

ইউক্রেনে আক্রমণের পর রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের ডেপুটি চেয়ারম্যান হিসেবে সবচেয়ে বেশি বিতর্কিত অবস্থানে রয়েছেন মেদভেদেভ। সাংবাদিক নাদানা ফ্রিড্রিসনও তার সাক্ষাতকারে বিষয়টি তুলে ধরে প্রশ্ন করেন। এ ছাড়া দীর্ঘ পাল্লার অস্ত্রের ব্যবহার রাশিয়াকে কিয়েভের সঙ্গে আলোচনায় বসতে বাধ্য করতে পারে কিনা জানতে চান নাদানা।

এ ব্যাপারে মেদভেদেভ বলেন, ফলাফল ঠিক বিপরীত হবে। শুধুমাত্র নৈতিক খামখেয়ালী- যা হোয়াইট হাউস বা ক্যাপিটল; উভয়েরেই যথেষ্ট আছে। তারা এমন বাজে তর্ক করতে পারে।

মেদভেদেভ হুমকি দিলেও যুদ্ধে নত স্বীকার করবেন না বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। তিনি বলেছেন, দেশের সৈন্যরা জান-প্রাণ দিয়ে শহরটি রক্ষা করবে। যদি আমাদের আরও বেশি অস্ত্র দেওয়া হয় বিভিন্ন অঞ্চল রক্ষার পাশাপাশি দনবাস অঞ্চল থেকে শত্রুদের বিতাড়িত করা সম্ভব।

পূর্বাঞ্চলীয় শহর বাখমুতে রুশ সেনাদের মোকাবিলার ব্যাপারে তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেন। জেলেনস্কি বলেছেন, কেউ বাখমুতে আত্মসমর্পণ করবে না। আমরা যতদিন পারি লড়াই করব। বাখমুত রক্ষায় হাল না ছেড়ে যতদিন প্রয়োজন লড়াই চলবে।

জেলেনস্কির এমন বক্তব্যের পর খুশির খবর পেতে যাচ্ছে ইউক্রেন। কারণ, পর্তুগাল সরকার বলেছে দেশটিকে তারা লেপার্ড-২ ট্যাংক দেবে।

পর্তুগিজ প্রধানমন্ত্রী আন্তোনিও কস্তা নিজেই এ ঘোষণা দিয়েছেন। কিন্তু মোট কতটি ট্যাংক তারা দেবেন, সেটি উল্লেখ করেননি।

কস্তা বলেছেন, আমরা আমাদের কিছু ট্যাংক বিতরণ করতে সক্ষম। আমি জানি কতটি পাঠানো হবে। এ ব্যাপারে উপযুক্ত সময়ে ঘোষণা দেওয়া হবে।

তিনি এও বলেছেন, তাদের অস্ত্রের তালিকায় থাকা বেশ কয়েকটি অকার্যকর লেপার্ড ট্যাংক মেরামতে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম পেতে জার্মানির সঙ্গে আলোচনা করছেন।

সূত্র: আল জাজিরা

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।